সাম্প্রতিক কার্যক্রম :
কথিত মানবাধিকার সংস্থার চেয়ারম্যান এবং হোমল্যান্ড সিকিউরিটি এন্ড গার্ড সার্ভিস লিমিটেড এর ব্যাবস্থাপনা পরিচালক পরিচয়ে শীর্ষ প্রতারক শাহীরুল ইসলাম সিকদার (৪৮)’কে বিপুল পরিমান দেশী-বিদেশী অস্ত্র ও গুলিসহ গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪। ✱ র‌্যাব-৯ এর অভিযানে হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং থানাধীন এলাকা হইতে সাইবার বুলিং ও পর্ণোগ্রাফী মামলার একজন ভন্ড কবিরাজ আহাদুর রহমান (৩৫) গ্রেফতার। ✱ র‌্যাব-৯ এর অভিযানে হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাট থানাধীন এলাকা হইতে ওয়ারেন্টভূক্ত একজন পলাতক আসামী গ্রেফতার । ✱ র‌্যাব-৯, সিলেট এবং জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, জেলা কার্যালয়, সিলেট এর যৌথ অভিযান এসএমপি সিলেট এর দক্ষিণ সুরমা থানাধীন এলাকায় পণ্যের মূল্যে তালিকা না প্রকাশ করে অতিরিক্ত মূল্যে পণ্য বিক্রয়সহ অবৈধ প্রক্রিয়ায় খাদ্য উৎপাদন ও মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য বিক্রয় করাসহ পণ্যের মোড়ক ব্যবহার না করায় “জরিমানা”। ✱ র‌্যাব-৭ এর অভিযানে চট্টগ্রাম মহানগরীর লালখান বাজার এলাকায় চাঁদা আদায়কালে ০৫ জন কিশোর গ্যাং এর সক্রিয় সদস্যকে চাঁদা আদায়ের নগদ অর্থ ও দেশীয় অস্ত্রসহ হাতে নাতে আটক। ✱ র‌্যাব-৯, সিলেট এর অভিযানে সিলেট জেলার গোয়াইনঘাট থানাধীন এলাকা হতে ১৭১ বোতল ফেন্সিডিল সহ একজন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার। ✱ র‌্যাব-৭ এর অভিযানে চট্টগ্রাম মহানগরীর কোতোয়ালী মোড় এলাকা হতে রাজধানী পল্লবীর “সাহিনুদ্দীন” হত্যাকান্ডের নৃশংস ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নোয়াখালীর “যতন সাহা” হত্যাকান্ড বলে প্রচার করে সাম্প্রদায়িক সম্প্রতি বিনষ্ট করার উদ্দেশ্যে অপপ্রচারের অভিযোগে ০১ জন আটক। ✱ র‌্যাব-৭ এর অভিযানে চট্টগ্রাম জেলার রাউজান থানাধীন নোয়াপাড়া এলাকা হতে জীনের বাদশা সেজে সকল সমস্যার সমাধান করার নামে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আদায়ের প্রতারক চক্রের ০৫ জন সক্রিয় সদস্য আটক। ✱ র‌্যাব-৯, সিলেট এর অভিযানে হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর থানাধীন এলাকা হতে ৩০ কেজি গাঁজা ও ০৩ বোতল বিয়ার এবং একটি প্রাইভেটকারসহ একজন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার। ✱ রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে র‌্যাবের অভিযানে ১৭ কেজি গাঁজাসহ ০২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার; মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত মাইক্রোবাস জব্দ । ✱

অপারেশনস্ উইং

১। অপারেশনস্ উইং র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তরের অন্যতম প্রধান উইং এবং র‌্যাব ফোর্সেসের যাবতীয় অপারেশনাল কার্যক্রমের কেন্দ্রবিন্দু। র‌্যাব ফোর্সেস এর যাবতীয় আভিযানিক নীতিমালা প্রণয়ন, নির্দেশনা প্রদান ও মাঠ পর্যায়ে সুষ্ঠু বাস্তবায়ন নিশ্চিত করা অপারেশনস্ উইং এর প্রধান দায়িত্ব। দেশের সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ পূর্বক ব্যাটালিয়নসমূহের দৈনন্দিন আভিযানিক কার্যক্রম প্রসংগে দিক নির্দেশনা প্রদানের পাশাপাশি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও পুলিশ সদর দপ্তরের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের কার্যক্রম অপারেশনস্ উইং কর্তৃক পরিচালিত হয়।

২। মহাপরিচালক ও অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশনস্) এর নির্দেশনা অনুযায়ী পরিচালক (অপারেশনস্) কর্তৃক এই উইং পরিচালিত হয়। এই উইং এর মাধ্যমে সকল র‌্যাব ব্যাটালিয়নের কার্যক্রম ও দেশের সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সার্বক্ষণিক মনিটর করা হয়। অপারেশনস্ উইং পাঁচটি শাখার মাধ্যমে কার্যসম্পাদন করে। শাখাসমূহ হলোঃ সেন্ট্রাল অপারেশনস্ শাখা, প্ল্যানিং অ্যান্ড মনিটরিং শাখা, ডগ স্কোয়াড, বম্ব ডিসপোজাল শাখা ও ট্রান্সপোর্ট শাখা। ‘‘সেন্ট্রাল অপারেশনস্’’ কর্তৃক অত্র উইং এর সামগ্রিক কর্মকান্ডের সমন্বয় ও ব্যাটালিয়নসমূহকে নির্দেশনা প্রদান করা হয়। প্ল্যানিং অ্যান্ড মনিটরিং শাখা কর্তৃক দৈনন্দিন আভিযানিক/অনাভিযানিক কর্মকান্ডের প্রতিবেদন ও সংখ্যাতাত্ত্বিক পরিসংখ্যান সংরক্ষণ ও বিশ্লেষণ করা হয়।

র‌্যাব ডগ স্কোয়াড ও বম্ব ডিসপোজাল শাখা সুইপিং এর মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন স্থানে ভিভিআইপি/ভিআইপি সংশ্লিষ্ট অনুষ্ঠানস্থলের নিরাপত্তা প্রদান করে। এছাড়াও বম্ব ডিসপোজাল শাখা দেশের যে কোন স্থানে প্রাপ্ত Impovised explosive device (IED)/ বিস্ফোরক দ্রব্যাদি সনাক্তকরণ, নিস্ক্রিয়করণ ও প্রয়োজনে ধ্বংস করে থাকে। ট্রান্সপোর্ট শাখা কর্তৃক র‌্যাব ফোর্সেস এর যানবাহনসমূহের বন্টন ও জ্বালানী সরবরাহসহ যাবতীয় কার্যক্রম পরিচালিত হয়।

৩। উপরোল্লিখিত দায়িত্বসমূহের পাশাপাশি র‌্যাব ফোর্সেস এর বিভিন্ন অপারেশনাল/গুরুত্বপূর্ণ সভা আয়োজন, মহাপরিচালক মহোদয়ের বিভিন্ন সভায় যোগদান সংক্রান্ত যাবতীয় আনুষঙ্গিক দলিলপত্রাদি প্রস্তুত, গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গের পরিদর্শন সংক্রান্ত ব্রিফিং প্রদান ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব অপারেশনস্ উইং কর্তৃক সম্পাদন করা হয়। এছাড়াও বিভিন্ন ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠান/কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রেরিত অভিযোগসমূহ নিরীক্ষা, যাচাই-বাছাই, বিশ্লেষণ ও তদন্ত প্রতিবেদনও অপারেশনস্ উইং কর্তৃক করা হয়। অপারেশনস্ উইং নিজস্ব কর্মক্ষেত্রে সদা তৎপর ও প্রশংসনীয় ভূমিকা পালন করে আসছে।