সাম্প্রতিক কার্যক্রম :
র‌্যাব-৩ এর অভিযানে ঢাকা মহানগরীর দারুসসালাম এলাকা হতে ১৭৮ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধারসহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ী আটক। ✱ র‌্যাব-৮, সিপিসি-২ ফরিদপুর ক্যাম্প কর্তৃক ফরিদপুর জেলার কোতয়ালী থানা হতে অপহরণকৃত ০৩ জন ভিকটিম উদ্ধার, অপহরণকারী চক্রের ০৪ জন সদস্য আটক। ✱ র‌্যাব-৯ এর অভিযানে হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর থানাধীন এলাকা থেকে ২০(বিশ) কেজি গাঁজাসহ ০২ জন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার। ✱ নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে কোভিড-১৯ টেষ্টের জাল অনুমতিপত্র তৈরি করে দেশব্যাপী কোভিড-১৯ টেষ্টের জন্য লোক নিয়োগের নামে প্রতারণা, র‌্যাব-১১ এর অভিযানে গ্রেফতার ০১ জন। ✱ র‌্যাব-৯ এর অভিযানে হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর থানাধীন এলাকা থেকে ১,০০২ পিস ইয়াবা সহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার। ✱ রাজধানীর কদমতলী এলাকায় নকল স্টিল রড/রি-রোলিং স্টিল উৎপাদন, মজুদ ও বিক্রি করায় র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১৪ লক্ষ টাকা জরিমানা। ✱ নারায়ণগঞ্জ ও রাজধানীর কদমতলী হতে র‌্যাবের অভিযানে ৮৯,৬৩০ পিস নকল দেশী সিগারেটসহ ০২ সিগারেট কালোবাজারী গ্রেফতার। ✱ র‌্যাব-১১ এর অভিযানে ০১ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ✱ র‌্যাব-১১ কর্তৃক ফতুল্লায় বুড়িগঙ্গা নদীতে চলাচলরত নৌযানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা, ১ জনকে কারাদন্ড ও ৪ জনকে জরিমানা ✱ ঢাকা জেলার আশুলিয়া এলাকা হতে ২৭ লক্ষ টাকা মূল্যমানের হেরোইনসহ ১ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪। ✱

এ্যাডমিন অ্যান্ড ফাইন্যান্স উইং

১। র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তর এর প্রশাসন ও অর্থ উইং সকল প্রকার প্রশাসনিক এবং যাবতীয় অর্থ সংক্রান্ত কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে। এই উইং সকল কর্মকান্ড সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য প্রধান চারটি শাখায় বিভক্ত। শাখা এবং উপ-শাখাসমূহের সংক্ষিপ্ত কাজের প্রকৃতি নিম্নরূপঃ

ক। এ্যাডমিন জেনারেল শাখা: এই শাখার তত্ত্বাবধানে তিনটি উপ-শাখা রয়েছে। উপ-শাখাগুলোর কাজের প্রকৃতি নিম্নরূপঃ

(১) সাপ্লাই উপ-শাখা: র‌্যাব ফোর্সেস এর সদস্যদের জন্য ক্লোদিং সামগ্রী, অস্ত্র, গোলাবারুদ, র‌্যাব সদর দপ্তরের ষ্টেশনারী দ্রব্যসামগ্রী ক্রয়, বিতরণ এবং এভিয়েশন ফুয়েল সরবরাহ করে থাকে।

 (২) পার্সোনেল উপ-শাখা: র‌্যাব সদস্যদের বদলী, পদোন্নতি, শৃঙ্খলা এবং কল্যাণ বিষয়ক সকল কার্যক্রম সম্পন্ন করে থাকে।

 (৩) জেনারেল উপ-শাখা: র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তরের র‌্যাব সদস্যদের কোয়ার্টারিং, টেলিফোন এবং মোবাইলের বিল সংক্রান্ত বিষয়াদি নিয়ে কাজ করে থাকে। এছাড়াও বাৎসরিক পুলিশ সপ্তাহ এবং জাতীয় প্যারেডে র‌্যাব কন্টিনজেন্ট এর অন্যান্য আনুষ্ঠানিক কার্যাবলী ও সামগ্রিক প্রশাসনিক ব্যবস্থা নিশ্চিত করে থাকে।

খ। সদর দপ্তর শাখা: সদর দপ্তর শাখার তত্ত্বাবধানে তিনটি উপ-শাখা রয়েছে। উপ-শাখাগুলোর কাজের প্রকৃতি নিম্নরূপঃ

 (১) সদর দপ্তর শাখা: র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তরের সামগ্রিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ক্যান্টিন, অফিসার্স ফিল্ডমেস, ডিএডি মেস, ফোর্সেস মেস, কোত ও ম্যাগাজিন এবং প্রশাসন ও অর্থ উইং এ কর্মরত সকল সদস্যের বেতন, ভাতা ও ছুটি সংক্রান্ত কার্যক্রম করে থাকে। এছাড়াও র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তরের কেদ্রীয় রেশন ষ্টোর পরিচালনা এবং র‌্যাব সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত বিভিন্ন আনুষ্ঠানিক কর্মসূচীর প্রশাসনিক ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করে থাকে।

 (২) মেডিকেল উপ-শাখা: র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তরে কর্মরত সকল সদস্যের বিভিন্ন রোগের পরীক্ষা-নিরীক্ষাসহ বিভিন্ন চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকে।

(৩)  রেকর্ড উপ-শাখা: র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তরের সকল সদস্যদের ব্যক্তিগত ইউনিট কপি শীটরোল/সার্ভিস বই হালনাগাদ কার্যক্রম নিশ্চিত করে থাকে।

গ। অর্থ শাখা: র‌্যাব ফোর্সেস এর অর্থ সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যক্রম সম্পন্ন করে। অর্থ শাখার তত্ত্বাবধানে তিনটি উপ-শাখা রয়েছে। উপ-শাখাগুলোর কাজের প্রকৃতি নিম্নরূপঃ

(১) প্রকিউরমেন্ট শাখা: র‌্যাব ফোর্সেস এর সকল ধরনের সরকারী ক্রয় সংক্রান্ত কাজ করে থাকে।

(২) এ্যাকাউন্ট ও বাজেট শাখা: র‌্যাব ফোর্সেস এর সকল প্রকার বাজেট ও অর্থ বরাদ্দ সংক্রান্ত কার্যক্রম করে থাকে।

(৩) উন্নয়ন উপ-শাখা: র‌্যাব ফোর্সেস এর অবকাঠামো নির্মাণ সংক্রান্ত সকল কাজ করে থাকে।

ঘ। সেন্ট্রাল ওয়ার্কশপ শাখা: এই শাখা র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তরের সকল যানবাহন এবং র‌্যাব ফোর্সেস এর সকল অস্ত্রের মেরামত ও সষ্ঠু রক্ষণাবেক্ষণ নিশ্চিত করে থাকে। এছাড়াও র‌্যাব ফোর্সেস এর যানবাহন ও অস্ত্রের বাৎসরিক কারিগরী পরিদর্শন সম্পন্ন করে থাকে।