সাম্প্রতিক কার্যক্রম :
র‌্যাবের অভিযানে আইন-শৃংঙ্খলা বাহিনীর ভূয়া পরিচয়ে স্কয়ার ফার্মার ২ কোটি টাকা মূল্যের কাঁচামাল ডাকাতির ঘটনায় দুর্ধর্ষ ডাকাত দলের মূল হোতাসহ ০৩ সদস্যকে ঢাকা ও রাজশাহী হতে গ্রেফতার। ডাকাতির মালামাল উদ্ধার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর গুলশান ও বাড্ডা এলাকা হতে জাল শিক্ষা সনদ তৈরী চক্রের ০৪ জন অভিযুক্ত গ্রেফতার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগে কর্মরত কনস্টেবল শরীফ (৩৩) হত্যার লোমহর্ষক রহস্য উদঘাটন এবং হত্যাকান্ডের ঘটনায় জড়িত মূলহোতাসহ ০৩ জনকে গ্রেফতার\ হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত রক্তমাখা চাকু ও বাসের হুইল রেঞ্জ উদ্ধার এবং রক্তমাখা বাসটি জব্দ। ✱ র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হতে গোপনে দেশত্যাগের প্রাক্কালে ধৃত ০৪ জন অবৈধ অর্থ পাচারকারী নিকট হতে চাঞ্চল্যকর তথ্য উদঘাটন এবং বিদেশী পিস্তল, ম্যাগাজিন, গুলিসহ বিপুল পরিমান নগদ টাকা উদ্ধার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর মোহাম্মদপুর থেকে ঢাকার আন্ডার ওয়াল্ডের শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসানের অন্যতম সহযোগী মাজহারুল ইসলাম @ শাকিল গ্রেফতার ✱ র‌্যাবের অভিযানে দেহের অভ্যন্তরে মাদক দ্রব্য বহনকারী ০৩ নারীসহ ০৮ মাদক ব্যবসায়ী আটক ॥ ১৫,০৮০ পিস ইয়াবা উদ্ধার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন চুনকুটিয়া এলাকা হতে অস্ত্র ও র‌্যাবের পোশাকসহ ০২ জন ভুয়া র‌্যাব আটক ✱ র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হতে গোপনে দেশত্যাগের প্রাক্কালে ০৪ জন অবৈধ অর্থ পাচারকারী ও জাল টাকা সরবরাহকারী গ্রেফতার \ বিপুল পরিমান দেশী-বিদেশী মুদ্রাসহ জাল টাকা উদ্ধার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর আশুলিয়া থানাধীন কাঠগড়া পালোয়ানপাড়া এলাকায় চাঞ্চল্যকর পাঠাও রাইড চালককে গলা কেটে হত্যার ঘটনায় জড়িত সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী দলের ০৩ জন গ্রেফতার এবং ভিকটিমের ব্যবহৃত মোবাইল উদ্ধার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে নারায়ণঞ্জের সোনারগাঁ হতে কাভার্ড ভ্যানে ফেনসিডিল পাচারকালে ০৩ জন গ্রেফতার। ৪৭০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার ও কাভার্ড ভ্যান জব্দ। ✱

ড. বেনজীর আহমেদ, বিপিএম (বার)

ডঃ বেনজীর আহমেদ, বিপিএম (বার) ১৯৬৩ সালে বাংলাদেশের গোপালগঞ্জের একটি সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একজন উচ্চ শিক্ষিত ব্যক্তি। তিনি এমএ, এমবিএ এবং এলএলবি ছাড়াও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ”ব্যবসায় শিক্ষা”  অনুষদ থেকে ব্যাবসায় প্রশাসনে ডক্টরেট সম্পন্ন করেছেন।

ডঃ বেনজীর আহমেদ ১৯৮৮ সালের ফেব্রুয়ারীতে সহকারী পুলিশ সুপার হিসাবে বাংলাদেশ পুলিশে যোগদান করেন। তিনি বাংলাদেশ পুলিশের বিভিন্ন ক্ষেত্রে দায়িত্ব পালন করে, তার পেশাদারিত্ব, নিষ্ঠা ও শ্রেষ্ঠত্বের প্রমাণ করেছেন। তাঁর পেশাগত প্রচেষ্টায় তিনি বিভিন্ন জেলার পুলিশ সুপার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন, আরও তিনি  উপ-পুলিশ কমিশনার উত্তর – ঢাকা মহানগর পুলিশ, সহকারী পুলিশ মহাপরিদর্শক পুলিশ সদর দপ্তর, উপ-মহাপরিদর্শক(অর্থ) এবং উপ-মহাপরিদর্শক (অ্যাডমিন ও অপারেশন) – পুলিশ সদর দপ্তর, পুলিশ কমিশনার – ঢাকা মহানগর পুলিশ এর দায়িত্ব পালন করেছেন। অধিকন্ত, তিনি সারদা, বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিক প্রধান প্রশিক্ষক এবং টাঙ্গাইলের পুলিশ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের কমান্ড্যান্ট হিসাবেও দায়িত্ব পালন করেন।

বর্তমানে ডঃ বেনজীর আহমেদ ২০১৫ সালের জানুয়ারী থেকে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন এ এর মহাপরিচালক হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন ।

ডঃ বেনজীর বসনিয়াতে ইউএন মিশন (ইউএনএমআইবিএইচ) এবং কসোভায় ইউএন মিশন (ইউএনএমআইকে) বাংলাদেশ পুলিশ কন্টিনজেন্ট এর কন্টিনজেন্ট কমান্ডার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি “মিশন ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড সাপোর্ট সেকশন”, পুলিশ বিভাগ, শান্তিরক্ষা অপারেশন বিভাগ, জাতিসংঘের সদর দপ্তর, নিউইয়র্ক, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মূখ্য ভুমিকা পালন করেছেন এবং ইউএনডিপিকে ও পুলিশ বিভাগের অফিসার ইনচার্জ হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন।

তিনি দেশ বিদেশ থেকে বিভিন্ন পেশাদার প্রশিক্ষণ নিয়ে নিজেকে অলংকৃত এবং উন্নত করেছেন। উল্লেখযোগ্য হলো: সন্ত্রাসবাদের প্রতি বিস্তৃত সুরক্ষা জবাব, এশিয়া প্যাসিফিক সেন্টার ফর সিকিউরিটিজ স্টাডিজ, হাওয়াই, আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র, গোয়েন্দা বিশ্লেষণ ও মূল্যায়ন, চালস স্ট্রুট বিশ্ববিদ্যালয়, ক্যানবেরা, অস্ট্রেলিয়ান ক্রাইম কমিশন এবং অস্ট্রেলিয়ান ফেডারেল পুলিশ, সন্ত্রাসবাদেও অ্যান্টি মানি লন্ডারিং ও ফিনান্সিং, আইএমএফ এর আঞ্চলিক প্রশিক্ষণকেন্দ্র, সিঙ্গাপুর, এইচআর ম্যানেজমেন্ট, ইউএন প্রশিক্ষন কেন্দ্র নিউইয়র্ক, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র । তিনি বিভিন্ন দেশে আইন প্রয়োগকারী ইস্যু সংক্রান্ত বিবিধ সেমিনার ও কর্মশালায় অংশ গ্রহন করেন।

যেমন পুলিশিং এর বিভিন্ন কর্ম ক্ষেত্রে সন্ত্রাসবাদ ও সন্ত্রাস অর্থায়ন অনুসন্ধান গোয়েন্দা সংস্থার, সাংগঠনিক সংস্কার, পুনর্নিমান, এবং পুনর্গঠন ও পরিবর্তন প্রভৃতি ক্ষেত্রে  তার অগাধ দক্ষতা, বিশেষজ্ঞতা এবং আধিপত্য রয়েছে।

ইউনাইটেড নেশন তাকে ইউএন পুলিশ বিভাগ পর্যালোচনা করতে বিশ্বব্যাপী স্বতন্ত্র প্যানেলে বিশেষজ্ঞ সদস্য হিসেবে নিযুক্ত করেছিলেন। (ডিসেম্বর ২০১৫-মে ২০১৬) ডঃ বেনজীর তার অসামান্য এবং গৌরবময় পেশাদারিত্ব এবং উৎসর্গের জন্য বিভিন্ন প্রশংসাসূচক, পুরস্কার এবং পদক পেয়েছেন, যার মধ্যে মহাপরিদর্শক পুলিশ অনুকরনীয় গুড সার্ভিস ব্যাজ, কসভো-২০০৩-এ বসনিয়া-শান্তিতে পরিসেবার জন্য জাতিসংঘ পদক, ইউএন সদর দপ্তর, ইউএসএ-২০০৯ এবং  ২০১১,২০১২,২০১৪,২০১৬,২০১৮ এবং ২০১৯ এ অসামান্র বাংলাদেশ পুলিশ পদক,(বিপিএম) উল্লেখযোগ্য। মহাপরিচালক দেশ  ও বিদেশ অক্ষে গুরুত্বপুর্ন সামাজিক সংস্থার সাথে ও যুক্ত। তিনি আইএসিপি ( ইন্টারন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন  অফ চিফস অফ পুলিশ) ইউএসএ, ইন্টারন্যাশনাল পুলিশ অ্যাসোসিয়েশন (আইপিএ) যুক্তরাজ্যও এর একজন গর্বিত সদস্য।

কমিশন এবং অস্ট্রেলিয়ান ফেডারেল পুলিশ, সন্ত্রাসবাদেও অ্যান্টি মানি লন্ডারিং ও ফিনান্সিং, আইএমএফ এর আঞ্চলিক প্রশিক্ষণকেন্দ্র, সিঙ্গাপুর, এইচআর ম্যানেজমেন্ট, ইউএন প্রশিক্ষন কেন্দ্র নিউইয়র্ক, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। তিনি বিভিন্ন দেশে আইনপ্রয়োগকারী ইস্যু সংক্রান্ত বেশ কয়েকটি সেমিনার ও কর্মশালায় অংশ নিয়েছিলেন। সন্ত্রাস ও সন্ত্রাস অর্থায়ন, গোয়েন্দা সংস্থা, সাংগঠনিক সংস্কার, পুনর্নিমান, এবং পুনর্গঠন ও পরিবর্তন ব্যবস্থার মতো পুলিশিং এর বিভিন্ন কর্ম ক্ষেত্রে তার অগাধ দক্ষতা, বিশেষজ্ঞতা এবং আধিপত্য রয়েছে।

ইউনাইটেড নেশন তাকে ইউএন পুলিশ বিভাগ পর্যালোচনা করতে বিশ্বব্যাপী; স্বতন্ত্র প্যানেলে; বিশেষজ্ঞ সদস্য হিসেবে নিযুক্ত করেছিলেন। (ডিস্মেবর ২০১৫-মে ২০১৬) ডঃ বেনজীর তার অসামান্য এবংগৌরবময় পেশাদারিত্ব এবং উৎসর্গেও জন্য বিভিন্ন প্রশংসাসুচক, পুরস্কার এবং পদক পেয়েছেন, যার মধ্যে মহাপরিদর্শক পুলিশ অনুকরনীয় গুড সার্ভিস ব্যাজ, কসভো-২০০৩-এ বসনিয়া-শান্তিতে পরিষেবার জন্য জাতিসংঘ পদক, ইউএন সদও দপ্তর, ইউএসএ-২০০৯ এবং২০১১,২০১২,২০১৪,২০১৬,২০১৮ এবং ২০১৯ এ অসামান্র বাংলাদেশ পুলিশ পদক,(বিপিএম) উল্লেখযোগ্য।

মহাপরিচালক দেশ  ও বিদেশ এ গুরুত্বপূর্ন সামাজিক সংস্থার সাথে ও যুক্ত। তিনি অইএসিপি( ইন্টারন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন  অফ চিফস অফ পুলিশ) ইউএসএ, ইন্টারন্যাশনাল পুলিশ অ্যাসোসিয়েশন (আইপিএ) যুক্তরাজ্যের একজন গর্বিত সদস্য। 

ডঃ বেনজীর আহমেদ একজন অত্যান্ত ভ্রমনপিয়াসু ব্যাক্তি। তিনি জাতীয় দ্বায়িত্ব পালনকালে এবং বিদেশ থাকাকালীন ৫টি মহাদেশের বিভিন্ন জায়গায় ভ্রমন করেছেন।

ব্যাক্তিগত জীবনে ডঃ বেনজীর আহমেদ স্ত্রী জিসান মির্জা  তিন কন্যাকে নিয়ে সুখী জীবনযাপন করছেন।