সাম্প্রতিক কার্যক্রম :
র‌্যাবের অভিযানে আইন-শৃংঙ্খলা বাহিনীর ভূয়া পরিচয়ে স্কয়ার ফার্মার ২ কোটি টাকা মূল্যের কাঁচামাল ডাকাতির ঘটনায় দুর্ধর্ষ ডাকাত দলের মূল হোতাসহ ০৩ সদস্যকে ঢাকা ও রাজশাহী হতে গ্রেফতার। ডাকাতির মালামাল উদ্ধার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর গুলশান ও বাড্ডা এলাকা হতে জাল শিক্ষা সনদ তৈরী চক্রের ০৪ জন অভিযুক্ত গ্রেফতার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগে কর্মরত কনস্টেবল শরীফ (৩৩) হত্যার লোমহর্ষক রহস্য উদঘাটন এবং হত্যাকান্ডের ঘটনায় জড়িত মূলহোতাসহ ০৩ জনকে গ্রেফতার\ হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত রক্তমাখা চাকু ও বাসের হুইল রেঞ্জ উদ্ধার এবং রক্তমাখা বাসটি জব্দ। ✱ র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হতে গোপনে দেশত্যাগের প্রাক্কালে ধৃত ০৪ জন অবৈধ অর্থ পাচারকারী নিকট হতে চাঞ্চল্যকর তথ্য উদঘাটন এবং বিদেশী পিস্তল, ম্যাগাজিন, গুলিসহ বিপুল পরিমান নগদ টাকা উদ্ধার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর মোহাম্মদপুর থেকে ঢাকার আন্ডার ওয়াল্ডের শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসানের অন্যতম সহযোগী মাজহারুল ইসলাম @ শাকিল গ্রেফতার ✱ র‌্যাবের অভিযানে দেহের অভ্যন্তরে মাদক দ্রব্য বহনকারী ০৩ নারীসহ ০৮ মাদক ব্যবসায়ী আটক ॥ ১৫,০৮০ পিস ইয়াবা উদ্ধার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন চুনকুটিয়া এলাকা হতে অস্ত্র ও র‌্যাবের পোশাকসহ ০২ জন ভুয়া র‌্যাব আটক ✱ র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হতে গোপনে দেশত্যাগের প্রাক্কালে ০৪ জন অবৈধ অর্থ পাচারকারী ও জাল টাকা সরবরাহকারী গ্রেফতার \ বিপুল পরিমান দেশী-বিদেশী মুদ্রাসহ জাল টাকা উদ্ধার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর আশুলিয়া থানাধীন কাঠগড়া পালোয়ানপাড়া এলাকায় চাঞ্চল্যকর পাঠাও রাইড চালককে গলা কেটে হত্যার ঘটনায় জড়িত সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী দলের ০৩ জন গ্রেফতার এবং ভিকটিমের ব্যবহৃত মোবাইল উদ্ধার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে নারায়ণঞ্জের সোনারগাঁ হতে কাভার্ড ভ্যানে ফেনসিডিল পাচারকালে ০৩ জন গ্রেফতার। ৪৭০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার ও কাভার্ড ভ্যান জব্দ। ✱

র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হতে গোপনে দেশত্যাগের প্রাক্কালে ধৃত ০৪ জন অবৈধ অর্থ পাচারকারী নিকট হতে চাঞ্চল্যকর তথ্য উদঘাটন এবং বিদেশী পিস্তল, ম্যাগাজিন, গুলিসহ বিপুল পরিমান নগদ টাকা উদ্ধার।

প্রকাশের তারিখ : ২৩-০২-২০২০

গত ২২ ফেব্রæয়ারি ২০২০ ইং তারিখ আনুমানিক ১১৩০ ঘটিকায় র‌্যাব-১ এর একটি আভিযানিক দল রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অভিযান পরিচালনা করে দেশ ত্যাগের প্রাক্কালে ১) শামিমা নূর পাপিয়া @ পিউ (২৮), তার স্বামী ২) মফিজুর রহমান @ সুমন চৌধুরী @ মতি সুমন (৩৮) এবং তাদের সহযোগী ৩) সাব্বির খন্দকার (২৯) ও ৪) শেখ তায়্যিবা (২২)’দেরকে আটক করে। ধৃত আসামীরা অবৈধ অস্ত্র ব্যবসা, মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজি, নারী সংক্রান্ত অনৈতিক কর্মকান্ড, জাল নোট সরবারহ, রাজস্ব ফাঁকি, অর্থ পাচারসহ বিভিন্ন অপরাধের সাথে জড়িত থাকায় তাদের গ্রেফতার করা হয়। এসময় ধৃত আসামীদের নিকট হতে ০৭টি পাসপোর্ট, বাংলাদেশী নগদ ২,১২,২৭০/- টাকা, বাংলাদেশী জাল নোট ২৫,৬০০/-, ভারতীয় রুপি ৩১০, শ্রীলংকান মুদ্রা ৪২০, ইউএস ডলার ১১,০৯১ এবং ০৭ টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। 

২।    পরবর্তীতে ধৃত আসামী শামিমা নূর পাপিয়া @ পিউ ও সুমন চৌধুরীর দেওয়া তথ্যমতে, অদ্য ২৩ ফেব্রæয়ারি ২০২০ ইং তারিখ আনুমানিক ০৪০০ ঘটিকার সময় হোটেল ওয়েস্টিনে তাদের নামে বুকিংকৃত বিলাসবহুল প্রেসিডেন্সিয়াল স্যুট রুম হতে এবং ফার্মগেট এলাকার ২৮নং ইন্দিরা রোডস্থ ‘রওশন’স ডমিনো রিলিভো’ নামক বিলাসবহুল ভবনে তাদের দুটি ফ্ল্যাটে অভিযান পরিচালনা করে ০১ টি বিদেশী পিস্তল, ০২ টি পিস্তলের ম্যাগাজিন, ২০ রাউন্ড পিস্তলের গুলি, ০৫ বোতল দামী বিদেশী মদ ও নগদ ৫৮,৪১,০০০/- টাকা, ০৫ টি পাসপোর্ট, ০৩ টি চেক, কিছু বিদেশী মুদ্রা, বিভিন্ন ব্যাংকের ভিসা/এটিএম কার্ড ১০ টি উদ্ধার করা হয়। 


৩।    ধৃত আসামীদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তাদের বর্তমান সম্পদ ও বিলাসবহুল জীবন সমন্ধে চাঞ্চল্যকর সব তথ্য উঠে আসে। সুনির্দিষ্ট পেশা না থাকা সত্তে¡ও তারা স্বল্প সময়ে বিপুল সম্পত্তি ও অর্থ বিত্তের মালিক হয়েছে। ফার্মগেট এলাকাস্থ ২৮ ইন্দিরা রোডে তাদের ০২ টি বিলাসবহুল ফ্ল্যাট, নরসিংদী শহরে ০২ টি ফ্ল্যাট, বিলাসবহুল ব্যক্তিগত গাড়ি ও নরসিংদীর বাগদী এলাকায় ০২ কোটি টাকা মূল্যের ০২ টি প্লট আছে বলে জানায়। এছাড়াও তেজগাঁও এফডিসি গেট সংলগ্ন এলাকায় অংশীদারিত্বে তাদের ‘কার একচেঞ্জ’ নামক গাড়ির শো রুমে প্রায় ০১ কোটি টাকা বিনিয়োগ আছে এবং নরসিংদী জেলায় ‘কেএমসি কার ওয়াস এন্ড অটো সলিউশন’ নামক প্রতিষ্ঠানে ৪০ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ আছে বলেও ধৃত আসামীরা জানায়। এছাড়াও দেশের বিভিন্ন ব্যাংকে তাদের নামে-বেনামে অনেক এ্যাকাউন্টে বিপুল পরিমান অর্থ গচ্ছিত আছে বলেও জানা যায়। এব্যাপারে র‌্যাবের অনুসন্ধান অব্যাহত আছে। 

৪।    অনুসন্ধানকালে ধৃত আসামীদের অধিকাংশ সময় রাজধানীর বিভিন্ন বিলাসবহুল হোটেলে অবস্থান করতে দেখা যায়। সবশেষ গত ১২/১০/২০১৯ ইং হতে ১৩/০২/২০২০ ইং তারিখ পর্যন্ত তারা বিভিন্ন মেয়াদে মোট ৫৯ দিন হোটেল ওয়েস্টিনের কয়েকটি বিলাসবহুল রুমে অবস্থান করে এবং আনুষঙ্গিক খরচসহ সর্বমোট ৮১,৪২,৮৮৮.৩১ টাকা নগদ পরিশোধ করে। তাদের এই বিপুল পরিমান অর্থের প্রকৃত উৎস জানতে চাওয়া হলে ধৃত অসামীরা কোন সন্তোষজনক জবাব দিতে পারেনি। 

৫।    প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায় যে, ধৃত আসামী শামিমা নূর পাপিয়া @ পিউ ও তার স্বামী সুমন চৌধুরী নরসিংদী এলাকায় অবৈধ অস্ত্র ও মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজী, চাকুরী দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারনা, জমির দালালি, সিএনজি পাম্পের লাইসেন্স প্রদান, গ্যাস লাইন সংযোগ ইত্যাদির নামে সাধারণ মানুষের নিকট হতে বিপুল পরিমাণ অর্থ আত্মসাৎ করে আসছে। এই পর্যন্ত পাওয়া তথ্যমতে ধৃত আসামীরা পুলিশের এসআই ও বংলাদেশ রেলওয়েতে বিভিন্ন পদে চাকুরী দেওয়ার নামে মোট ১১ লক্ষ টাকা, একটি কারখানায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ দেওয়ার কথা বলে ৩৫ লক্ষ টাকা, একটি সিএনজি পাম্পের লাইসেন্স করে দেওয়ার কথা বলে ২৯ লক্ষ টাকাসহ ঢাকা ও নরসিংদী এলাকায় চাঁদাবাজি, মাদক ও অস্ত্র ব্যবসাসহ বিভিন্ন অপরাধ কর্মকান্ডের মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা অবৈধভাবে উপার্জন করেছে বলে জানা যায়। 

৬।    তাদের আয়ের অরেকটি উৎস হচ্ছে নারীদের দিয়ে জোরপূর্বক অনৈতিক কাজ করানো। তারা ঢাকাস্থ বিভিন্ন বিলাসবহুল হোটেলে অবস্থান করে কম বয়সি মেয়েদের দিয়ে জোরপূর্বক অনৈতিক কাজে বাধ্য করে। যাদের অধিকাংশই নরসিংদী এলাকা হতে চাকুরী দেওয়ার কথা বলে এবং বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে নিয়ে আসা হয়েছে। এসব অনৈতিক কাজে কেউ অস্বীকৃতি জানালে ধৃত আসামীরা তাদের বিভিন্নভাবে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে বলে অনুসন্ধানে জানা যায়।

৭।    এছাড়াও ধৃত আসামী শামিমা নূর পাপিয়া @ পিউ ও তার স্বামী সুমন চৌধুরী এর নরসিংদী এলাকায় ‘কিউ এন্ড সি’ নামক একটি ক্যাডার বাহিনী আছে। যাদের মাধ্যমে তারা নরসিংদীর বিভিন্ন এলাকায় চাঁদাবাজির, মাসোহারা আদায়, অস্ত্র ও মাদক ব্যবসাসহ এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের জন্য সকল প্রকার অন্যায় কাজের সাথে জড়িত বলে স্থানীয় সূত্রে জানা যায়। তাদের এই ক্যাডার বাহিনীর অনেকের নাম ইতোমধ্যে জানা গেছে, যাদের গ্রেফতারের লক্ষে র‌্যাবের অভিযান অব্যাহত আছে।   
 

আরও সাম্প্রতিক কার্যক্রম