সাম্প্রতিক কার্যক্রম :
রাজধানীর চকবাজার ও কামরাঙ্গীরচর এলাকায় নকল কসমেটিক্স ও অস্বাস্থ্যকর খাবার উৎপাদন, মজুদ ও বিক্রি করায় র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১৫ লক্ষাধিক টাকা জরিমানা। ✱ ঢাকা হতে জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জগামী কমিউটার ট্রেনে চাঞ্চল্যকর খুনসহ ডাকাতির ঘটনায় জড়িত ০৫ জন পেশাদার ডাকাতকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১৪। ✱ ঢাকা জেলার আশুলিয়া হতে ১২ বছরের শিশু অপহরণের ০৪ ঘন্টা পর ভূক্তভোগীকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব-৪; অপহরণকারী চক্রের ১১ সদস্য মাদক ও দেশীয় অস্ত্রসহ গ্রেফতার। ✱ র‌্যাব-৯, সিলেট এবং এ্যাক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট (সহকারী কমিশনার ভূমি), হবিগঞ্জ এর যৌথ অভিযানে হবিগঞ্জ জেলার হবিগঞ্জ সদর থানাধীন এলাকার ০১ টি বে-সরকারী হাসপাতালে অভিযান পরিচালনা করে = ৩৫,০০০/- টাকা জরিমানা আদায়। ✱ টিকটক চক্রের খপ্পরে পড়ে অপহৃত ৮ম শ্রেণীর ছাত্রীকে ময়মনসিংহ জেলার গফরগাঁও থেকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব-৪ঃ অপহরনকারী চক্রের ০১ সদস্য গ্রেফতার। ✱ র‌্যাব-৯, সিলেট এবং জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, সিলেট এর যৌথ অভিযানে সিলেট জেলার জৈন্তাপুর থানাধীন এলাকায় “প্রদত্ত মূল্যের বিনিময়ে প্রতিশ্রæত পণ্য বা সেবা প্রদান না করিবার অপরাধে” ০৫ টি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা। ✱ কক্সবাজার হোটেলে চাঞ্চল্যকর নারী হত্যার প্রধান আসামী সাগরকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। ✱ র‌্যাব-১১ এর পৃথক অভিযানে রূপগঞ্জ হতে ০১ জন মাদক ব্যবসায়ী এবং ডাকাতি মামলার ০১ জন পলাতক আসামী গ্রেফতার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে ঢাকার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ এলাকা হতে ২০ লক্ষ টাকা মূল্যের হেরোইনসহ ০২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার। ✱ র‌্যাব-৯ এর অভিযানে সিলেট জেলার জকিগঞ্জ থানাধীন এলাকা হইতে ৭৫০ পিস ইয়াবা উদ্ধার। ✱

চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন, বিপিএম, পিপিএম

জনাব চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন, বিপিএম, পিপিএম ১৯৬৪ সালের ১২ই জানুয়ারি সুনামগঞ্জের শাল্লা থানাধীন শ্রীহাইল গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজবিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতক (সম্মান) সহ  স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন। বিসিএস ১৯৮৬ ব্যাচের কর্মকর্তা হিসেবে সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) পদে ১৯৮৯ সালে তিনি বাংলাদেশ পুলিশে যোগদান করেন।

    জনাব চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন তার দীর্ঘ বর্ণিল চাকুরীজীবনে বাংলাদেশ পুলিশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ইউনিটে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ডিএমপির সহকারী কমিশনার, এপিবিএন এর এএসপি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, সিরাজগঞ্জ ও চাঁদপুর জেলায় সার্কেল এএসপি, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে চাঁদপুর জেলায় এবং ডিএমপির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার এর মত গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে নিয়োজিত ছিলেন। এছাড়াও তিনি নীলফামারী জেলার পুলিশ সুপার (এসপি), ডিএমপির উপ-কমিশনার (ডিসি) ও পুলিশ সদর দপ্তরের এআইজি (সংস্থাপন) এবং এআইজি (গোপনীয়) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি অতিরিক্ত ডিআইজি হিসেবে ঢাকা রেঞ্জে এবং ডিআইজি হিসেবে ডিআইজি (অপারেশনস্), ডিআইজি (প্রশাসন), রেঞ্জ ডিআইজি হিসেবে ময়মনসিংহ রেঞ্জ এবং ঢাকা রেঞ্জের মত গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে অধিষ্ঠিত ছিলেন। পদোন্নতিপ্রাপ্ত হয়ে তিনি এডিশনাল আইজিপি (এইচ আর এম) এর দায়িত্বপ্রাপ্ত হন। র‌্যাব ফোর্সেস এর মহাপরিচালক হিসেবে যোগদানের পূর্বে তিনি সিআইডি প্রধান হিসেবে সফলভাবে দায়িত্ব পালন করেন। বাংলাদেশ পুলিশে অসামান্য অবদান এবং অনন্য সেবাদানের স্বীকৃতিস্বরুপ তিনি ‘‘বাংলাদেশ পুলিশ মেডেল’’ (বিপিএম) এবং ‘‘প্রেসিডেন্ট পুলিশ মেডেল’’ (পিপিএম) পদকে ভ‚ষিত হন। 

    জনাব চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বসনিয়া-হার্জেগোভিনা, লাইবেরিয়া এবং দারফুরে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অসামান্য অবদান রেখেছেন। তিনি দেশ-বিদেশের বেশ কিছু মর্যাদাপূর্ণ পেশাগত প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করেন। তিনি ভ্রমণ করতে ভালবাসেন। বিশ্বের প্রায় ত্রিশটি দেশ তিনি ভ্রমণ করেছেন। জনাব চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন এবং তার স্ত্রী ডাঃ তৈয়বা মুসাররাত জাঁহা চৌধুরী দম্পতির দুই পুত্র ও এক কন্যা সন্তান রয়েছে।