অপরাধী দমন ও শান্তি প্রতিষ্ঠায় আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ

র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)

সাম্প্রতিক কার্যক্রম :
র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর তুরাগ এলাকা হতে অবৈধ অস্ত্র, জাল নোট ব্যবসা ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের সাথে জড়িত আব্দুল মালেক @ ড্রাইভার মালেক (৬৩) গ্রেফতার \ বিপুল পরিমান জাল নোটসহ ০১ টি বিদেশী পিস্তল উদ্ধার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে সাভার ও আশুলিয়া এলাকায় র‌্যাবের পৃথক অভিযানে ৪৩২ ক্যান বেলজিয়ান বিয়ারসহ ২ জন ও ৩১৬ পিস ট্যাপেন্টাডলসহ ৩ জন গ্রেফতার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে আশুলিয়ার পল্লীবিদ্যুৎ এলাকা হতে অস্ত্র ও গুলিসহ ১ জন অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী গ্রেফতার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে চট্টগ্রাম মহানগরীর বাকলিয়া থানাধীন নতুন ব্রীজ গোল চত্ত¡র এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৩,৫৩০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত একটি যাত্রীবাহী বাস জব্দ। ✱ র‌্যাবের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের বন্দর হতে দেশীয় ধারালো অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধারসহ ০৫ জন গ্রেফতার। ✱ চট্টগ্রাম মহানগরীর কোতয়ালী থানাধীন স্টেশন রোড এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৩.৬৯০ কেজি ওজনের একটি কষ্টি পাথরের মূর্তি উদ্ধারসহ ০১ জন চোরাকারবারী’কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৭। ✱ র‌্যাবের অভিযানে সিলেট জেলার কোম্পানীগঞ্জ থানার খাগাইল গ্রাম থেকে ১৪৫ পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে কুমিল্লা জেলার কোতয়ালী থানাধীন রাজগঞ্জ বাজার এলাকা হতে ৩,২৪,৮২৫ পিচ চোরাই বিদেশী সিগারেটসহ ০৩ জন চোরাকারবারী গ্রেফতার। ✱ র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর দারুস সালাম থানাধীন কল্যানপুর এলাকা হতে ১১৯ ক্যান বিয়ারসহ ১ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার। ✱ র‌্যাব-৮, সিপিসি-১(পটুয়াখালী ক্যাম্প) কর্তৃক বরগুনার আমতলী উপজেলা হতে ওয়ারেন্ট ভুক্ত পলাতক একজন আসামী গ্রেফতার ✱

চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন, বিপিএম, পিপিএম

মহাপরিচালক, র‌্যাব ফোর্সেস
র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)

আমাদের জানুন

বাংলাদেশ একটি উন্নয়নশীল দেশ। আমাদের উন্নতির পথে যে সকল বাধা বিপত্তি রয়েছে তার মধ্যে, অস্থিতিশীল আইন শৃংখলা পরিস্থিতি অন্যতম। এরকম একটি পরিস্থিতিতে যখন সমাজের প্রত্যেকটা মানুষ অনিশ্চিয়তার মাঝে ভুগছিল, তখন পুলিশ বাহিনীর কার্যক্রমকে আরো গতিশীল ও কার্যকর করার লক্ষ্যে সরকার একটি এলিট ফোর্স গঠনের পরিকল্পনা করে। ক্রমান্বয়ে সভা-সমন্বয়, আলোচনা ও গবেষনার পর সরকার, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তত্ত্ববধানে  বাংলাদেশ পুলিশের অধীনে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন সংক্ষেপে র‌্যাব ফোর্সেস নামে একটি এলিট ফোর্স গঠনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। গত ২৬ মার্চ ২০০৪ তারিখে জাতীয় স্বাধীনতা দিবস প্যারেডে অংশ গ্রহনের মাধ্যমে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) জনসাধারনের সামনে আত্মপ্রকাশ করে। জন্মের পরপরই এই ফোর্সের ব্যাটালিয়নসমূহ সাংগঠনিক কর্মকান্ডে ব্যস্ত থাকে এবং স্ব স্ব এলাকা সম্পর্কে গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ শুরু করে। এর মাঝে প্রথম অপারেশনাল দায়িত্ব পায় ১৪ এপ্রিল ২০০৪ তারিখে পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠান-রমনা বটমুলে নিরাপত্তা বিধান করার জন্য । এর পর আবার র‌্যাব মূলত তথ্য সংগ্রহের কাজে নিয়োজিত ছিল। গত ২১ জুন ২০০৪ থেকে র‌্যাব ফোর্সেস পূর্ণাঙ্গভাবে অপারেশনাল কার্যক্রম শুরু করে।

র‌্যাবের দায়িত্ব সমূহ

  • অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা দায়িত্ব।
  • অবৈধ অস্ত্র, গোলাবারুদ, বিস্ফোরক এবং এ জাতীয় অন্যান্য বস্তু উদ্ধার।
  • অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদেও গ্রেফতার।
  • আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে সহায়তা করা।
  • সন্ত্রাস ও সন্ত্রাসী সম্পর্কে গোয়েদা তথ্য সংগ্রহ করা।
  • সরকার নির্দেশিত যে কোন অপরাধের তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনা করা।
  • সরকার নির্দেশিত যে কোন জাতীয় দায়িত্ব পালন করা।

র‌্যাব কর্তৃক প্রদত্ত পরামর্শ

       পরিবার ও সমাজকে নিরাপদ রাখতে আপনাদের যা করণীয়

  • জমি জমা বা টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোন অভিযোগ র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
  • ব্যক্তিগত বা পারিবারিক কোন সমস্যা র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না।
  • কোন অভিযোগ করার পূর্বে আপনার এলাকার জন্য দায়িত্বপূর্ন র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্প সম্পর্কে জানুন ও যথাযথ র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্পে অভিযোগ করুন।
  • আপনার এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে র‌্যাব কে তথ্য প্রদান করে র‌্যাবকে সহযোগীতা করুন । আপনার পরিচয় সম্পূর্ন গোপন রাখা হবে।
  • বেশী করে গাছ লাগান অক্সিজেনের অভাব তাড়ান।
  • ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের আগুন নিয়ে খেলতে দিবেন না।
  • যাত্রা পথে অপরিচিত লোকের দেওয়া বিছু খাবেন না । ভ্রমণকালে সহযোগী বা অন্য কাহারো নিকট হইতে পান, বিড়ি, সিগারেট, চা বা অন্য কোন পানীয় খাওয়া/গ্রহণ করা হইতে বিরত থাকা আবশ্যক।

টিভিসি

সাম্প্রতিক কার্যক্রম

র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর তুরাগ এলাকা হতে অবৈধ অস্ত্র, জাল নোট ব্যবসা ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের সাথে জড়িত আব্দুল মালেক @ ড্রাইভার মালেক (৬৩) গ্রেফতার \ বিপুল পরিমান জাল নোটসহ ০১ টি বিদেশী পিস্তল উদ্ধার।

রাজধানীর তুরাগ এলাকায় জনৈক আব্দুল মালেক @ ড্রাইভার মালেক (৬৩) এর বিরুদ্ধে অবৈধ অস্ত্র ব্যবসা, জাল টাকা ব্যবসা, চাঁদাবজিসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের অভিযোগ পাওয়া যায়। তার বিরুদ্ধে সরেজমিন অনুসন্ধানে জানা যায় যে, সে তার এলাকায় সাধারণ মানুষকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে শক্তির মহড়া ও দাপট প্রদর্শণের মাধ্যমে ত্রাসের রাজত্য সৃষ্টি করেছে এবং জন জীবন অতিষ্ঠ করে তুলেছে। তার ভয়ে এলাকায় সাধারণ মানুষের মনে সর্বদা আতঙ্ক বিরাজ করে। সে দীর্ঘ দিন যাবৎ বর্ণিত এলাকায় চাঁদাবাজি, অবৈধ অস্ত্র ব্যবসা এবং জাল টাকার ব্যবসা করে আসছে বলে জানা যায়।     এরই ধারাবাহিকতায় অদ্য ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ইং তারিখ আনুমানিক ০৩১০ ঘটিকার সময় র‌্যাব-১ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, অবৈধ অস্ত্র, জাল নোট ব্যবসায়ী, চাঁদাবাজ এবং তুরাগ থানা এলাকার ত্রাস আব্দুল মালেক @ ড্রাইভার মালেক (৬৩) বিপুল পরিমান জাল টাকা ও অবৈধ অস্ত্রসহ রাজধানীর তুরাগ থানাধীন কামারপাড়াস্থ বামনের টেক বাসা নং-৪২,হাজী কমপ্লেক্স এর ৭ম তলা ভবনের ৩য় তলায় অবস্থান করছে। প্রাপ্ত সংবাদের ভিত্তিতে আভিযানিক দলটি বর্ণিত স্থানে অভিযান পরিচালনা করে মোঃ আঃ মালেক @ বাদল (৬৩), পিতা- মৃত আঃ বারী, সাং- বাসা নং-৪২, হাজী কমপ্লেক্স এর ৭ম তলা ভবন, কামারপাড়াস্থ বামনের টেক, থানা- তুরাগ, ডিএমপি, ঢাকা’কে গ্রেফতার করে। এসময় ধৃত আসামীর নিকট হতে ০১ টি বিদেশী পিস্তল, ০১ টি ম্যাগাজিন, ০৫ রাউন্ড গুলি, ১,৫০,০০০ বাংলাদেশী জাল নোট, ০১ টি ল্যাপটপ ও ০১ টি মোবাইল উদ্ধার করা হয়।      ধৃত আসামীকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, সে পেশায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিবহণ পুলের একজন ড্রাইভার এবং একজন তৃতীয় শ্রেনীর কর্মচারী। তার শিক্ষাগত যোগ্যতা ৮ম শ্রেণী। সে ১৯৮২ সালে সর্বপ্রথম সাভার স্বাস্থ্য প্রকল্পে ড্রাইভার হিসেবে যোগদান করেন। পরবর্তীতে ১৯৮৬ সালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিবহণ পুলে ড্রাইভার হিসেবে চাকুরী শুরু করে। বর্তমানে সে প্রেষণে স্বাস্থ্য ও শিক্ষা অধিদপ্তরে কর্মরত আছে। সে দীর্ঘ দিন যাবৎ অবৈধ অস্ত্র ব্যবসা, জাল নোট ব্যবসাসহ অস্ত্রের মাধ্যমে ভীতি প্রদর্শণ পূর্বক সাধারণ মানুষের নিকট হতে বিপুল পরিমান অর্থ হতিয়ে হাতিয়ে নিয়েছে বলে স্বীকার করে।        ধৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে আব্দুল মালেক @ ড্রাইভার মালেক (৬৩) এর স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তির একটি আনুমানিক হিসাব আভিযানিক দলের নিকট আসে। জানা যায় যে, তার স্ত্রীর নামে দক্ষিণ কামাড় পাড়ায় ০২ টি ৭তলা বিলাসবহুল ভবন আছে, ধানমন্ডির হাতিরপুল এলাকায় ৪.৫ কাঠা জমিতে একটি নির্মাণাধীন ১০তলা ভবন আছে এবং দক্ষিণ কামাড় পাড়ায় ১৫ কাঠা জমিতে একটি ডেইরি ফার্ম আছে। এছাড়াও  বিভিন্ন ব্যাংকে নামে-বেনামে বিপুল পরিমাণ অর্থ গচ্ছিত আছে বলেও জানা যায়।  

র‌্যাবের অভিযানে সাভার ও আশুলিয়া এলাকায় র‌্যাবের পৃথক অভিযানে ৪৩২ ক্যান বেলজিয়ান বিয়ারসহ ২ জন ও ৩১৬ পিস ট্যাপেন্টাডলসহ ৩ জন গ্রেফতার।

অদ্য ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখ রাত ০২.৩০ ঘটিকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল ঢাকা জেলার সাভার মডেল থানাধীন হারুরিয়া সাকিনস্থ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ৪৩২ ক্যান বেলজিয়ান বিয়ারসহ (১৬.৮% এলকোহলযুক্ত) মাদক ব্যবসায়ী ১। মোঃ মকবুল আহমেদ @ মুকুল(২৪), জেলা-ঢাকা ও ২। মোঃ হাফিজুর রহমান(২৬), জেলা-গোপালগঞ্জ এবং অদ্য ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০ তারিখ রাত ২১.৩০ ঘটিকায় আশুলিয়া থানাধীন গনকবাড়ী সাকিনস্থ হাসান এ্যাপার্টমেন্ট এর নিচ তলায় জিয়া ড্রাগ হাউজ-২ এ অভিযান পরিচালনা করে ৩১৬ পিস অবৈধ মাদকদ্রব্য ট্যাপেন্টাডলসহ আসামী ১। মোঃ নাঈম ইসলাম(২১), জেলা-নড়াইল ২। মোঃ আবু বক্কর(২১),  ব্রাহ্মণবাড়িয়া এবং ৩। মোঃ নুর নবী(২২), জেলা-কুড়িগ্রাম দের’কে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, আসামীদ্বয় দীর্ঘ দিন যাবত বিদেশি বিয়ার সংগ্রহ করে আশুলিয়া ও সাভার এলাকায় ডিলারদের নিকট বিক্রয় করে আসছিল এবং ধৃত আসামী মোঃ মকবুল আহমেদ @ মুকুল এর বিরুদ্ধে পূর্বে মাদকের একাধিক মামলা রয়েছে। উল্লেখ্য যে, জিয়া ড্রাগ হাউস-২ এর বিরুদ্ধে পূর্বেও অনুমোদনহীন ও নিষিদ্ধ ঔষধ মজুদের জন্য মোবাইল কোর্ট কর্তৃক অর্থদন্ড করা হয়েছিলো।      উপরোক্ত বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

র‌্যাবের অভিযানে আশুলিয়ার পল্লীবিদ্যুৎ এলাকা হতে অস্ত্র ও গুলিসহ ১ জন অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী গ্রেফতার।

ধারাবাহিকতায় ১৭/০৯/২০২০ তারিখ রাত ০১.৩০ ঘটিকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৪ এর একটি চৌকস আভিযানিক দল আশুলিয়া থানাধীন পল্লীবিদ্যুৎ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ০১টি বিদেশী পিস্তল, ০১টি ম্যাগাজিন এবং ০২ রাউন্ড গুলিসহ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী মোঃ রিয়াজুল ইসলাম(৩৬), জেলাঃ ঢাকা’কে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, গ্রেফতারকৃত আসামী মোঃ রিয়াজুল ইসলাম অস্ত্র প্রদর্শন করে ভয়ভীতি দেখিয়ে বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যকলাপ করে আসছিলো। আসামী মূলত অস্ত্রধারী হওয়ায় সাধারণ জনগণ তার বিরুদ্ধে কোন কথা বলতে সাহস করত না এবং কেউ তার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ করলে অস্ত্র প্রদর্শন করে ভয়ভীতি দেখাতো।     উপরোক্ত বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।  

র‌্যাবের অভিযানে চট্টগ্রাম মহানগরীর বাকলিয়া থানাধীন নতুন ব্রীজ গোল চত্ত¡র এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৩,৫৩০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত একটি যাত্রীবাহী বাস জব্দ।

অদ্য ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ ইং তারিখ ০০০৫ ঘটিকায় র‌্যাব-৭ এর একটি আভিযানিক দল চট্টগ্রাম মহানগরীর বাকলিয়া থানাধীন নতুনব্রীজ গোল চত্ত¡র সংলগ্ন ক্যাফে ডি গ্র্যান্ড হোটেল এন্ড বিরিয়ানী হাউজ এর সামনে মহাসড়কের উপর একটি বিশেষ চেকপোস্ট স্থাপন করে গাড়ি তল্লাশি শুরু করে। এ সময় র‌্যাবের চেকপোস্টের দিকে আসা কক্সবাজার হতে ঢাকাগামী ‘‘শ্যামলী পরিবহন" এর একটি বাসকে তল্লাশীর জন্য থামানোর সংকেত দিলে বাসের ড্রাইভার বাসটিকে র‌্যাবের চেকপোস্টের সামনে থামালে গাড়ি থেকে নেমে দুই জন লোক দ্রæত পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে আসামী ড্রাইভার ১। মোঃ আজিজুর রহমান (৪২), পিতা- ছাবের আহাম্মেদ, সাং- উত্তর কালিয়াইশ, থানা- সাতকানিয়া, জেলা- চট্টগ্রাম এবং চালকের সহকারী ২। মোঃ মানিক (২৯), পিতা- মোঃ ইদ্রিস আহাম্মদ, সাং- বানিয়াকুম, থানা- চকরিয়া, জেলা- কক্সবাজার’দের আটক করে। পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামীদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তাদের দেখানো ও নিজ হাতে বের করে দেওয়া মতে বাসের বডির বাম পাশে বাহিরের অংশে ব্যাটারী রাখার স্থানে সু-কৌশলে লুকানো অবস্থায় ১৩,৫৩০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ উক্ত বাসটি (ঢাকা মেট্রো-ব-১৪-৩২৬৭) জব্দ করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায়, তারা দীর্ঘদিন যাবত কক্সবাজার থেকে ইয়াবা ট্যাবলেট সংগ্রহ করে বিভিন্ন কৌশলে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মাদক ব্যবসায়ী কাছে বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত ইয়াবা ট্যাবলেট এর আনুমানিক মূল্য ৬৭ লক্ষ ৬৫ হাজার টাকা।    উপরোক্ত বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।  

র‌্যাবের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের বন্দর হতে দেশীয় ধারালো অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধারসহ ০৫ জন গ্রেফতার।

অদ্য ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ খ্রিষ্টাব্দে রাত ০১.৩০ ঘটিকায় নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর থানাধীন কেওঢালা এলাকায় এক বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ৫জন সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করা হয়। গেফতারকৃতরা হলোঃ ১। মোঃ আমিনুল ইসলাম @ শাহিন (৩৭), ২। মোঃ সাদেক হোসেন (৩০), ৩। শ্রাবণ আকন (১৮), ৪। মোঃ ইয়াছিন আহম্মেদ @ জুনায়েদ (২২) ও ৫। মোঃ আশিকুর রহমান শিকদার @ শাকিব (২২)। এ সময় তাদের দখল হতে ০২টি চাইনিজ কুড়াল, ০২টি স্টীলের চাকু, স্টীলের তৈরি ০২টি ছুরি, ০১টি রামদা, ০১টি তরবারী, ০১টি পিস্তলের কভার, ০১টি হাসুয়া এবং ৩০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।  প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায় যে, গ্রেফতারকৃত আসামীরা দুর্ধর্ষ পেশাদার সন্ত্রাসী, অপহরণকারী ও চাঁদাবাজ চক্রের সক্রিয় সদস্য। তারা দীর্ঘদিন যাবৎ পরষ্পর যোগসাজশে দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে সংঘবদ্ধভাবে সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজি, অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায়, মাদক ব্যবসাসহ নানা ধরনের অপরাধমূলক কর্মকান্ড চালিয়ে আসছিল। গ্রেফতারকৃত দুষ্কৃতিকারীদের অপরাধ সংঘটনের সুনির্দিষ্ট তথ্যসহ কিছু ছবি পাওয়ার পর দীর্ঘদিন যাবৎ গোয়েন্দা নজরদারীর মাধ্যমে এই সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী চক্রকে সনাক্ত করে র‌্যাব। অতঃপর র‌্যাব-১১ এর একটি চৌকস আভিযানিক দল কর্তৃক অদ্য ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ খ্রিষ্টাব্দে রাত ০১.৩০ ঘটিকায় নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর থানাধীন কেওঢালা এলাকা হতে সংঘবদ্ধ অবস্থায় ০৫ জন সন্ত্রাসীদের হাতে-নাতে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায়, গ্রেফতারকৃত আসামী মোঃ আমিনুল ইসলাম @ শাহিন এর নেতৃত্বে একটি কিশোর গ্যাং চক্র মদনপুর এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে মাদক ব্যবসাসহ নানা ধরনের অপরাধমূলক কাজ করে আসছিল এবং তার বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ জেলার বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।    উপরোক্ত বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

চট্টগ্রাম মহানগরীর কোতয়ালী থানাধীন স্টেশন রোড এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৩.৬৯০ কেজি ওজনের একটি কষ্টি পাথরের মূর্তি উদ্ধারসহ ০১ জন চোরাকারবারী’কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৭।

র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, চট্টগ্রাম মহানগরীর কোতয়ালী থানাধীন হোটেল কমফোর্ট লিঃ এর উত্তর পাশে ৮৬নং স্টেশন রোড, হামিদ ম্যানশন এর পূর্ব পাশে একটি ভবনের ৪র্থ তলা ভাড়া বাসার ভিতর কতিপয় চোরাকারবারী অবৈধ ভাবে কষ্টি পাথরের মূর্তি ক্রয়-বিক্রয়ের জন্য অবস্থান করছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে গত ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ইং তারিখ ১৫৪০ ঘটিকায় র‌্যাব-৭ এর একটি আভিযানিক দল বর্ণিত স্থানে অভিযান পরিচালনা করলে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর চেষ্টাকালে আসামী মোঃ মফিজ (২৮), পিতা- মৃত নূর মোহাম্মদ, সাং- রফিকপুর, থানা- বেগমগঞ্জ, জেলা- নোয়াখালী’কে আটক করে। পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে তল্লাশী করে আসামীর নিজ হেফাজতে থাকা ৩.৬৯০ কেজি ওজনের পুরাকীর্তি কষ্টি পাথরের একটি মূর্তি উদ্ধারসহ আসামী’কে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, সে কষ্টি পাথরের মূর্তি অবৈধ ভাবে বিক্রয়ের জন্য উক্ত স্থানে অবস্থান করছিল।   গ্রেফতারকৃত আসামী এবং উদ্ধারকৃত আলামত সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে চট্টগ্রাম মহানগরীর কোতয়ালী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।   

র‌্যাবের অভিযানে সিলেট জেলার কোম্পানীগঞ্জ থানার খাগাইল গ্রাম থেকে ১৪৫ পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার।

গত ১৫ সেপ্টে¤¦র ২০২০ তারিখ রাত ১১টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব -৯, এর একটি আভিযানিক দল সিলেট জেলার কোম্পানীগঞ্জ থানার খাগাইল গ্রাম থেকে ইয়াবা- ১৪৫ পিস জব্দসহ জনৈক মো. সেলিম উদ্দিন (৩০), পিতা-হাজী মো. আব্দুস ছালাম, সাং- খাগাইল , থানা- কোম্পানীগঞ্জ, জেলা-সিলেট কে গ্রেফতার করেন। 

র‌্যাবের অভিযানে কুমিল্লা জেলার কোতয়ালী থানাধীন রাজগঞ্জ বাজার এলাকা হতে ৩,২৪,৮২৫ পিচ চোরাই বিদেশী সিগারেটসহ ০৩ জন চোরাকারবারী গ্রেফতার।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ইং তারিখ ১৭৫০ ঘটিকায় র‌্যাব-৭ এর একটি আভিযানিক দল কুমিল্লা জেলার কোতয়ালী থানাধীন রাজগঞ্জ বাজার এলাকার মেসার্স আক্তার ষ্টোর, মজুমদার ষ্টোর, মেসার্স সাহা ব্রাদার্স নামীয় দোকানে অভিযান পরিচালনা করলে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকালে আসামী ১। মোঃ আক্তার (৫২), পিতা- সুলতান আহম্মদ, সাং- ঢুলিপাড়া (দক্ষিন রসুলপুর), থানা- সদর দক্ষিন ও জেলা- কুমিল্লা, ২। মোঃ নাসির (৫০), পিতা- মৃত জুলফে আলী, সাং-পাড়ুয়ারা, থানা- চৌদ্দগ্রাম, জেলা- কুমিল্লা এবং ৩। কৌশিক সাহা (২৮), পিতা- সঞ্জয় সাহা, সাং- ছাতিপট্টি, থানা- কোতয়ালী, জেলা- কুমিল্লাদের’কে আটক করে। পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামীদের দেখানো ও শনাক্ত মতে আসামীদের দোকান তল্লাশী করে দোকানের মধ্যে লুকানো অবস্থায় ৩,২৪,৮২৫ শলাকা অবৈধভাবে সংগ্রহ করা চোরাই সিগারেট উদ্ধারসহ আসামীদের’কে গ্রেফতার করা হয়। উদ্ধারকৃত সিগারেটের আনুমানিক মূল্য ৪৮ লক্ষ ৭২ হাজার ৩৭৫ টাকা। গ্রেফতারকৃত আসামীদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায়, তারা দীর্ঘদিন যাবত বিভিন্ন কৌশলে শুল্ক ফাঁকি দিয়ে বিভিন্ন দেশ থেকে সিগারেট নিয়ে আসে এবং পরবর্তীতে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পাইকারী বিক্রয় করে আসছে। 

র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর দারুস সালাম থানাধীন কল্যানপুর এলাকা হতে ১১৯ ক্যান বিয়ারসহ ১ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখ সন্ধা ১৯.২০ ঘটিকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল ঢাকা মহানগরীর দারুস সালাম থানাধীন কল্যানপুরস্থ হানিফ কাউন্টার এর সামনে পাকা রাস্তার উপর অভিযান পরিচালনা করে ১১৯ ক্যান বিয়ারসহ মাদক ব্যবসায়ী হোসেন মোহাম্মদ রাফিয়ান(২৩), জেলাঃ ঢাকা’কে গ্রেফতার করা হয়।     প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, আসামী দীর্ঘ দিন যাবত বিভিন্ন এলাকা হতে বিয়ার সংগ্রহ করে অভিনব কৌশলে লোক চক্ষুর অন্তরালে টয়োটা গাড়ীর পিছনের ঢালার ভেতরে লুকানো অবস্থায় রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় ডিলারদের নিকট বিক্রয় করে আসছিল।  

র‌্যাব-৮, সিপিসি-১(পটুয়াখালী ক্যাম্প) কর্তৃক বরগুনার আমতলী উপজেলা হতে ওয়ারেন্ট ভুক্ত পলাতক একজন আসামী গ্রেফতার

র‌্যাব-৮, সিপিসি-১ (পটুয়াখালী ক্যাম্প) এর একটি বিশেষ আভিযানিক দল কোম্পানী কমান্ডার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার জনাব মোঃ ইফতেখারুজ্জামান এর নেতৃত্ব অদ্য ০৭/০৯/২০২০ইং তারিখ বিকাল আনুমানিক ০৫.০০ ঘটিকার সময় বরগুনা জেলার আমতলী উপজেলার ফায়ার সার্ভিস এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে (সিআর মামলা-১১১/১৯) এর ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামী মোঃ আওয়াল মীরা (৪৫), পিতা- মৃত কালাম, সাং-সোনাউঠা, থানা-আমতলী, জেলা-বরগুনাকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত আসামীকে বরগুনা জেলার আমতলী থানায় হস্তান্তর করা হয়। 

সহজে ইনস্টল করুন, রিপোর্ট করুন, নিরাপদ থাকুন

রিপোর্ট টু র‌্যাব মোবাইল অ্যাপস

সন্ত্রাসী আক্রমন

র‍্যাবকে সন্ত্রাসী আক্রমনের তথ্য দিতে পারবেন

সন্ত্রাসী তথ্য

র‍্যাবকে সন্ত্রাসীর তথ্য দিতে পারবেন

সামাজিক যোগাযোগ

র‍্যাবকে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম গুলতে অপরাধের তথ্য দিতে পারবেন

অপহরন

র‍্যাবকে অপহরনের তথ্য দিতে পারবেন

নিখোঁজ ব্যাক্তির তথ্য

র‍্যাবকে নিখোঁজ ব্যাক্তির তথ্য দিতে পারবেন

খুন

র‍্যাবকে খুনের তথ্য দিয়ে সাহায্য করতে পারবেন

ডাকাতি

র‍্যাবকে ডাকাতির তথ্য দিয়ে সাহায্য করতে পারবেন

মাদক

র‍্যাবকে মাদকের তথ্য দিতে পারবেন

সম্মাননা



  • অতিঃ আইজিপি জনাব বেনজীর আহমেদ, বিপিএম (বার)

    মহাপরিচালক

    র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তর

    বিপিএম - ২০১৮

  • কর্নেল মোঃ আনোয়ার লতিফ খান, বিপিএম, পিএসসি

    এডিজি অপারেশনস

    র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তর

    বিপিএম - ২০১৮

  • কর্নেল মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, বিপিএম, এএফডব্লিউসি, পিএসসি

    এডিজি অপারেশনস

    র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তর

    বিপিএম - ২০১৮

  • লেঃ কর্নেল মোঃ মাহাবুব আলম, বিপিএম ,বিপিএম(সেবা), পিপিএম

    পরিচালক, ইন্টেলিজেন্স উইং

    র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তর

    বিপিএম - ২০১৮

  • অতিরিক্ত ডিআইজি আতিকা ইসলাম ,বিপিএম

    অধিনায়ক

    র‌্যাব-৮

    বিপিএম - ২০১৮

  • অতিঃ ডিআইজি মোঃ মোজাম্মেল হক, বিপিএম(বার), পিপিএম

    অধিনায়ক

    র‌্যাব-১৩

    বিপিএম - ২০১৮

  • মেজর নাঈম আব্দুল্লাহ, বিপিএম

    ইন্টেলিজেন্স উইং

    র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তর

    বিপিএম - ২০১৮

  • মেজর মেহেদী হাসান, বিপিএম

    র‌্যাব-৭

    বিপিএম - ২০১৮

  • স্কোয়াড্রন লীডার শাফায়াত জামিল ফাহিম, বিপিএম, পিপিএম

    র‌্যাব-৭

    বিপিএম - ২০১৮

  • সিঃ ওয়াঃ অফিঃ মোঃ মোকারম হোসেন খাঁন, বিপিএম

    র‌্যাব-১১

    বিপিএম - ২০১৮

ফটো গ্যালারি

ভিডিও গ্যালারি

র‌্যাব ব্যাটালিয়ন সমূহের তথ্য

র‌্যাব ব্যাটালিয়ন সমূহ