অপরাধী দমন ও শান্তি প্রতিষ্ঠায় আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ

র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)

সাম্প্রতিক কার্যক্রম :
র‌্যাব-৭ এর অভিযানে চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুন্ড থানাধীন জোড়ামতল বাজার এলাকা হতে আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর গণধর্ষণ মামলার ০১ জন অন্যতম এজাহারনামীয় আসামী আটক। ✱ র‌্যাব-৮, সিপিসি-২, ফরিদপুর ক্যাম্প কর্তৃক ফরিদপুর এবং রাজবাড়ী জেলার বিভিন্ন স্থান হতে আন্তঃ জেলা মোটর সাইকেল চোর চক্রের ০৫ সদস্য আটক ✱ র‌্যাব-৩ এর অভিযানে আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর নটরডেম কলেজের ছাত্রের নির্মম মৃত্যুর ঘটনায় ঘাতক ময়লাবাহী গাড়ীর মূল চালক মোঃ হারুন রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে গ্রেফতার। ✱ সাভার থানাধীন তেঁতুলঝোড়া এলাকা হতে ০১ জন ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪ ✱ রাজধানীর পান্থপথে ময়লাবাহী গাড়ির চাপায় সংবাদমাধ্যমের কর্মী আহসান কবির খাঁন এর নির্মম মৃত্যুর ঘটনায় ঘাতক ডাম্প ট্রাক চালক হানিফ’কে চাঁদপুর থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। ✱ র‌্যাব-৯, সিপিসি-১, (শায়েস্তাগঞ্জ ক্যাম্প), হবিগঞ্জ এর অভিযানে হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাট থানাধীন রাম ভাংগা ব্রীজ এলাকা হতে ১,০০০ (একহাজার) লিটার চোলাই মদ উদ্ধার। ✱ র‌্যাব-১১ এর অভিযানে সোনারগাঁ হতে ১০ কেজি গাঁজাসহ ০২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার, প্রাইভেটকার জব্দ ✱ ঢাকার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ এলাকা হতে ইজি বাইক ছিনতাইকারী চক্রের ০২ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। ✱ ডিএমপি, ঢাকার মিরপুর থানা এলাকা হতে অপহরনের ৭২ ঘন্টার মধ্যে ভিকটিম উদ্ধারসহ অপহরনকারী ০১ জন গ্রেফতার। ✱ র‌্যাব-১১ এর অভিযানে ০১ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার। ✱

চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন, বিপিএম, পিপিএম

মহাপরিচালক, র‌্যাব ফোর্সেস
র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)

আমাদের জানুন

বাংলাদেশ একটি উন্নয়নশীল দেশ। আমাদের উন্নতির পথে যে সকল বাধা বিপত্তি রয়েছে তার মধ্যে, অস্থিতিশীল আইন শৃংখলা পরিস্থিতি অন্যতম। এরকম একটি পরিস্থিতিতে যখন সমাজের প্রত্যেকটা মানুষ অনিশ্চিয়তার মাঝে ভুগছিল, তখন পুলিশ বাহিনীর কার্যক্রমকে আরো গতিশীল ও কার্যকর করার লক্ষ্যে সরকার একটি এলিট ফোর্স গঠনের পরিকল্পনা করে। ক্রমান্বয়ে সভা-সমন্বয়, আলোচনা ও গবেষনার পর সরকার, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তত্ত্ববধানে  বাংলাদেশ পুলিশের অধীনে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন সংক্ষেপে র‌্যাব ফোর্সেস নামে একটি এলিট ফোর্স গঠনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। গত ২৬ মার্চ ২০০৪ তারিখে জাতীয় স্বাধীনতা দিবস প্যারেডে অংশ গ্রহনের মাধ্যমে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) জনসাধারনের সামনে আত্মপ্রকাশ করে। জন্মের পরপরই এই ফোর্সের ব্যাটালিয়নসমূহ সাংগঠনিক কর্মকান্ডে ব্যস্ত থাকে এবং স্ব স্ব এলাকা সম্পর্কে গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ শুরু করে। এর মাঝে প্রথম অপারেশনাল দায়িত্ব পায় ১৪ এপ্রিল ২০০৪ তারিখে পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠান-রমনা বটমুলে নিরাপত্তা বিধান করার জন্য । এর পর আবার র‌্যাব মূলত তথ্য সংগ্রহের কাজে নিয়োজিত ছিল। গত ২১ জুন ২০০৪ থেকে র‌্যাব ফোর্সেস পূর্ণাঙ্গভাবে অপারেশনাল কার্যক্রম শুরু করে।

র‌্যাবের দায়িত্ব সমূহ

  • অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা দায়িত্ব।
  • অবৈধ অস্ত্র, গোলাবারুদ, বিস্ফোরক এবং এ জাতীয় অন্যান্য বস্তু উদ্ধার।
  • অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার।
  • আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে সহায়তা করা।
  • সন্ত্রাস ও সন্ত্রাসী সম্পর্কে গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ করা।
  • সরকার নির্দেশিত যে কোন অপরাধের তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনা করা।
  • সরকার নির্দেশিত যে কোন জাতীয় দায়িত্ব পালন করা।

র‌্যাব কর্তৃক প্রদত্ত পরামর্শ

       পরিবার ও সমাজকে নিরাপদ রাখতে আপনাদের যা করণীয়

  • জমি জমা বা টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোন অভিযোগ র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
  • ব্যক্তিগত বা পারিবারিক কোন সমস্যা র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না।
  • কোন অভিযোগ করার পূর্বে আপনার এলাকার জন্য দায়িত্বপূর্ন র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্প সম্পর্কে জানুন ও যথাযথ র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্পে অভিযোগ করুন।
  • আপনার এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে র‌্যাব কে তথ্য প্রদান করে র‌্যাবকে সহযোগীতা করুন । আপনার পরিচয় সম্পূর্ন গোপন রাখা হবে।
  • বেশী করে গাছ লাগান অক্সিজেনের অভাব তাড়ান।
  • ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের আগুন নিয়ে খেলতে দিবেন না।
  • যাত্রা পথে অপরিচিত লোকের দেওয়া বিছু খাবেন না । ভ্রমণকালে সহযোগী বা অন্য কাহারো নিকট হইতে পান, বিড়ি, সিগারেট, চা বা অন্য কোন পানীয় খাওয়া/গ্রহণ করা হইতে বিরত থাকা আবশ্যক।

টিভিসি

সাম্প্রতিক কার্যক্রম

র‌্যাব-৭ এর অভিযানে চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুন্ড থানাধীন জোড়ামতল বাজার এলাকা হতে আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর গণধর্ষণ মামলার ০১ জন অন্যতম এজাহারনামীয় আসামী আটক।

গত ২৫ নভেম¦র ২০২১ খ্রিঃ তারিখ জনৈক ভিকটিমকে আসামী মোঃ আব্দুল আলী লিংকন (৩২), ২। মোঃ হান্নান (৩২) এবং ৩। মোঃ জাহিদ (২৫) বিভিন্ন রকম ভয়ভীতি দেখিয়ে জোরপূর্বক একটি টিনের ঘরে আটকে রেখে ধর্ষণ করে। উক্ত ঘটনায় ভিকটিম বাদী হতে একই তারিখ চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুন্ড থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন, যার মামলা নং- ৪১, তারিখ ২৫ নভেম¦র ২০২১ ইং, ধারা- নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ৯(৩), ২০০০ সালের সংশোধনী ২০০৩। মামলা দায়ের হওয়ার পর থেকেই র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম ছায়াতদন্ত শুরু করে ও জড়িতদের আইনের আওতায় নিয়ে আসতে গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করে। এরই ধারাবাহিকতায়, র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, উক্ত মামলার ০২নং এজাহারনামীয় পলাতক আসামী চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুন্ড থানাধীন জোড়ামতল বাজার এলাকায় অবস্থান করছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে গত ২৬ নভেম¦র ২০২১ খ্রিঃ তারিখ ২৩০৫ ঘটিকায় র‌্যাব-৭, চট্টগ্রামের একটি আভিযানিক দল বর্ণিত এলাকায় অভিযান পরিচালনা করলে র‌্যাব এর উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে র‌্যাব সদস্যরা আসামী মোঃ হান্নান (৩২), পিতা- নুর মিয়া, সাং- ঘোড়ামারা, থানা- সীতাকুন্ড, জেলা- চট্টগ্রাম’কে আটক করে। গ্রেফতারকৃত আসামীকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, সে উপরোল্লিখিত গণধর্ষণ মামলার একজন এজাহারনামীয় পলাতক আসামী।      গ্রেফতারকৃত আসামী সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুন্ড থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

র‌্যাব-৮, সিপিসি-২, ফরিদপুর ক্যাম্প কর্তৃক ফরিদপুর এবং রাজবাড়ী জেলার বিভিন্ন স্থান হতে আন্তঃ জেলা মোটর সাইকেল চোর চক্রের ০৫ সদস্য আটক

 র‌্যাব-৮, সিপিসি-২, ফরিদপুর ক্যাম্প সংবাদ পত্র ও স্থানীয় তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, ফরিদপুর এবং রাজবাড়[ী জেলার বিভিন্ন এলাকায় মোটর সাইকেল চুরির কার্যক্রম বহুলাংশে বেড়েই চলেছে।  উক্ত সংবাদ অবহিত হওয়ার পর অত্র ক্যাম্প উক্ত চক্রের সদস্যদের গ্রেফতারের জন্য তৎপর হয়। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৬ নভেম্বর ২০২১ তারিখ গোয়েন্দা তথ্যের উপর ভিত্তি করে অত্র ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক এবং স্কোয়াড অধিনায়কের নেতৃত্বে  ফরিদপুর জেলার কোতয়ালী থানাধীন ধুলদী বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে মোটর সাইকেল চোর চক্রের সদস্য ০১। মোঃ কাওসার মোল্লা(২৭), পিতা-মৃত আমজাদ মোল্লা, সাং-চরশামনগর, থানা-রাজবাড়ী সদর, জেলা-রাজবাড়ী, ০২। মোঃ ইয়াকুব মাতুব্বর(২৩), পিতা-মোঃ শাহিদ মাতুব্বর, সাং-ফুরসা, থানা-কোতয়ালী, জেলা-ফরিদপুরদ্বয়কে আটক করেন। পরবর্তীতে ধৃত আসামীদ্বয়ের স¦ীকারোক্তি থেকে জানা যায় উক্ত চোর চক্রের অন্যান্য সদস্যরা ফরিদপুর জেলার কোতয়ালী থানার ফুরসা গ্রাম এবং ভাংগা থানার পুকুরিয়া গ্রাম এলাকায় অবস্থান করছে। উক্ত সংবাদের প্রেক্ষিতে গোয়েন্দা তথ্যের উপর ভিত্তি করে ফরিদপুর জেলার কোতয়ালী থানাধীন ফুরসা গ্রাম এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে মোটর সাইকেল চোর চক্রের সদস্য ০৩। মোঃ ইমরান মাতুব্বর(২৫), পিতা-মোঃ আকুব্বর মাতুব্বর, ০৪। মোঃ আব্দুল্লাহ(২০), পিতা-মোঃ হাবিব ফকির, উভয় সাং-বালিয়াগট্টি, থানা-সালথা, জেলা-ফরিদপুর এবং ফরিদপুর জেলার জেলার ভাংগা থানাধীন পুকুরিয়া গ্রাম এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ০৫। মোঃ রাহাত মোল্লা(২০), পিতা-মোঃ শাহজাহান মোল্লা, সাং-পুকুরিয়া, থানা-ভাংগা, জেলা-ফরিদপুরদেরকে গ্রেফতার করেন।  এ সময় তাদের নিকট হতে ০৪ (চার) টি চোরাই মোটর সাইকেল, মোটর সাইকেল চুরির কাজে ব্যবহৃত ০৯ টি সীমকার্ডসহ ০৫টি মোবাইল ফোন এবং নগদ ৫,৬০০/- টাকা জব্দ করা হয়। আসামীদের স্বীকারোক্তি থেকে জানা যায় তারা আন্তঃ জেলা মোটর সাইকেল চোরাকারবারী চক্রের সদস্য। তারা চোরাই মোটর সাইকেল বিক্রির জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম তথা ফেইসবুকে স্বল্পমূল্যে মোটর সাইকেল বিক্রির লোভনীয় অফার দিয়ে সহজ সরল মানুষকে ঠকিয়ে চোরাই মোটর সাইকেল বিক্রয় করে থাকে।      উদ্ধারকৃত আলামত সহ গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে ফরিদপুর জেলার কোতয়ালী থানায় সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।  

র‌্যাব-৩ এর অভিযানে আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর নটরডেম কলেজের ছাত্রের নির্মম মৃত্যুর ঘটনায় ঘাতক ময়লাবাহী গাড়ীর মূল চালক মোঃ হারুন রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে গ্রেফতার।

গত ২৪/১১/২০২১ খ্রিঃ তারিখে ঢাকা মহানগরীর গুলিস্থান এলাকায় ময়লাবাহী ট্রাকের চাপায় নটেরডেম কলেজের শিক্ষার্থী নাঈম খাঁনের নিহতের ঘটনায় দেশব্যাপি চাঞ্চ্যলের সৃষ্টি হয়। এরই প্রেক্ষিতে অন্যান্য আইন শৃংখলা বাহিনীর পাশাপাশি র‌্যাব-৩ ছায়া তদন্ত এবং গোয়েন্দা নজরদারী শুরু করে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৩ এর আভিযানিক দল ২৬/১১/২০২১খ্রিঃ তারিখ ভোরে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ঢাকা মহানগরীর যাত্রাবাড়ী এলাকা হতে ময়লাবাহী ট্রাকটির মূল চালক মোঃ হারুন, সাং-ফরদাবাদ, থানা-বাঞ্চারামপুর, জেলা-বি-বাড়িয়াকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।  প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত মোঃ হারুন জানায় যে, ২০২০ সাল হতে সে ময়লাবাহী এই গাড়িটি নিয়মিতভাবে চালিয়ে আসছে। গত ২৪/১১/২০২১খ্রিঃ তারিখ সে অনুপস্থিত থাকার কারণে তার সহকারী মোঃ রাসেল গাড়িটি চালায়। এখানে উল্লেখ্য যে, হারুন এবং রাসেল দু’জনেরই কোন ড্রইভিং লাইসেন্স নেই।  গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

সাভার থানাধীন তেঁতুলঝোড়া এলাকা হতে ০১ জন ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪

ভিকটিম ও ভিকটিমের স্বামী তারা নব্য বিবাহিত এবং তারা ঢাকা জেলার সাভার থানার তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নে একটি বাড়িতে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে আসছে। ভিকটিম পেশায় একজন গৃহিনী এবং তার স্বামী একজন রেস্টুরেন্ট কর্মী। রেস্টুরেন্টে কাজ করার জন্য গত ১০/১১/২০২১ তারিখে ভিকটিমকে একা বাসায় রেখে তার স্বামী কাজের জন্য রেস্টুরেন্টে যায়। ধর্ষক পেশায় একজন ডিস কর্মচারী। ধর্ষক রাশেদুজ্জামান মুন্না (২৯) গত ১০/১১/২০২১ তারিখ আনুমানিক বিকাল ০৪:০০ ঘটিকার সময় ডিসের লাইন মেরামতের উদ্দেশ্যে ভিকটিমের বাসায় যায়। তখন ভিকটিম আসামী রাশেদুজ্জামান মুন্নাকে বলে বাড়িতে আর কেউ নেই তাই পরে আসার জন্য বলে। প্রতিউত্তরে রাশেদুজ্জামান মুন্না জানায় তার অল্প কিছুক্ষণের ডিস লাইনের কাজ আছে। এরপর ভিকটিম গোসল করতে গেলে ধৃত আসামি রাশেদুজ্জামান মুন্না তার মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে, রাশেদুজ্জামান মুন্না বিষয়টি কাউকে না জানানোর জন্য বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি প্রদর্শন করত তাকে প্রানে মেরে  ফেলার হুমকি প্রদান করে। পরবর্তীতে ভিকটিমের স্বামী র‌্যাব-৪ এর নিকট একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে র‌্যাব-৪ এর একটি গোয়েন্দা দল ছায়া তদন্ত শুরু করে। এর ফলশ্রæতিতে র‌্যাব-৪ এর একটি আভিধানিক দল অদ্য ২৫/১১/২০২১ ইং তারিখ ০৭:০০ ঘটিকার সময় সাভার থানাধীন তেঁতুলঝোড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ধর্ষন এর দায়ে মোঃ রাশেদুজ্জামান মুন্না (২৯)’কে গ্রেফতার করতে সমর্থ হয় ৩।    প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামি রাশেদুজ্জামান মুন্না ভিকটিমকে জোরপূর্বক ধর্ষণ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে। ৪।     গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন। অদূর ভবিষ্যতে এইরুপ অপরাধীদের বিরুদ্ধে র‌্যাব-৪ এর অভিযান অব্যাহত থাকবে।  

রাজধানীর পান্থপথে ময়লাবাহী গাড়ির চাপায় সংবাদমাধ্যমের কর্মী আহসান কবির খাঁন এর নির্মম মৃত্যুর ঘটনায় ঘাতক ডাম্প ট্রাক চালক হানিফ’কে চাঁদপুর থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

সাম্প্রতিক সময়ে গত ২৪ ও ২৫ নভেম্বর ২০২১ তারিখ রাজধানীতে ময়লাবাহী গাড়ি চাপায় দুইজন নিহত হয়েছেন। গত ২৪ নভেম্বর ২০২১ তারিখ বুধবার গুলিস্তান এলাকায় নটরডেম কলেজের ছাত্র নাঈম খান ময়লাবাহী গাড়ি চাপায় নিহত হন। এইচএসসি পরীক্ষার্থী এই শিক্ষার্থীর নিহতের ঘটনায় ময়লাবাহী ডাম্প ট্রাকের মূল চালক হারুন’কে গত ২৬ নভেম্বর ২০২১ তারিখ আটক করে র‌্যাব-৩ এর একটি আভিযানিক দল।      সংবাদমাধ্যম কর্মী মোঃ আহসান কবির খাঁন (৪৬) পান্থপথের বসুন্ধরা সিটি শপিং কমপ্লেক্স এর উল্টোদিকে ময়লাবাহী আরেকটি গাড়ির চাপায় নিহত হন। প্রত্যক্ষদর্শীদের জিজ্ঞাসাবাদ এবং প্রাথমিক তদন্তে জানা যায় যে, সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত আহসান কবির খাঁন গত ২৫ নভেম্বর ২০২১ তারিখ তার মগবাজারস্থ বাসা থেকে মিরপুরের কর্মস্থলে রাইড শেয়ারিং অ্যাপ এর একটি মোটরসাইকেল করে যাচ্ছিলেন। যাওয়ার পথে আনুমানিক ১৪৩০ ঘটিকায় সোনারগাঁ মোড় থেকে পান্থপথে যাওয়ার রাস্তার সিগন্যালে অপেক্ষা করছিলেন মোটর সাইকেলের পিছনের আসনের আরোহী আহসান কবির খাঁন। এসময় অন্যান্য গাড়ির সাথে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের একটি ময়লাবাহী ডাম্প ট্রাক (পরীক্ষাধীন নম্বরঃ ৫১২৮) সেখানে অপেক্ষা করছিল। সিগন্যাল ছাড়া মাত্রই আহসান কবির খাঁনের মোটরসাইকেল ধাক্কা খেলে তিনি মাটিতে ছিটকে পড়েন। ময়লাবাহী গাড়ির চালক গাড়িটি না থামিয়ে তার উপর দিয়ে চালিয়ে চলে যায়। এ সময় অন্যান্য মোটর সাইকেল চালক এবং স্থানীয় লোকজন গাড়িটিকে ধাওয়া দিলে, ময়লাবাহী ডাম্প ট্রাকটি গ্রীনরোড সিগন্যাল পর্যন্ত গিয়ে চালক এবং তার সহকারী গাড়িটি রেখে পালিয়ে যায়। উপস্থিত পথচারীরা আহসান কবিরকে ঘটনাস্থল হতে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তার নিকট প্রাপ্ত পরিচয় পত্র থেকে তাকে সনাক্ত করা হয়। উক্ত ঘটনায় নিহতের স্ত্রী নাদিরা পারভীন বাদী হয়ে কলাবাগান থানায় একটি মামলা রুজু করেন যার মামলা নং- ৩৩, তারিখ ২৫ নভেম্বর ২০২১; ধারা ১০৫ সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮।       নিহত আহসান কবির খাঁন দৈনিক সংবাদে কর্মরত ছিলেন। ইতিপূর্বে তিনি প্রথম আলোসহ বেশ কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমে কাজ করেছেন। দোষীদের শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনার জন্য সংবাদমাধ্যম কর্মীর এই মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনাটি প্রথম থেকেই বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে গুরুত্ব সহকারে প্রচার করা হয়। র‌্যাব বর্ণিত ঘটনার সংবাদ প্রাপ্তির সাথে সাথে ছায়াতদন্ত শুরু করে ও জড়িত ময়লাবাহী গাড়ি চালককে আইনের আওতায় নিয়ে আসার লক্ষ্যে গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে।       এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব সদর দপ্তর গোয়েন্দা শাখা ও র‌্যাব-২ এর অভিযানে গত ২৬ নভেম্বর ২০২১ তারিখ চাঁদপুরের হাইমচর এলাকায় অভিযান চালিয়ে হত্যাকান্ডের সময় ময়লাবাহী ডাম্প ট্রাক (পরীক্ষাধীন নম্বরঃ ৫১২৮) এর চালক মোঃ হানিফ @ ফটিক (২৩), পিতা-মোঃ কামাল মিয়া, গ্রামঃ সিটিপল্লী (১৪ মধ্যবস্তি), পোঃ ওয়ারী টিএসও, জেলা- কুমিল্লা’কে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত হানিফ উক্ত নির্মম, হৃদয় বিদারক অকাল মৃত্যুর সাথে সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি স্বীকার করে।   গ্রেফতারকৃত হানিফ’কে বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদে জানায় যে, গত ২৫ নভেম্বর ২০২১ তারিখ কারওয়ান বাজার থেকে গাবতলীতে ময়লা পরিবহনের কাজে নিয়োজিত ছিল এবং সকালে দুইবার ময়লা নিয়ে গিয়েছিল। ময়লা নিয়ে তৃতীয় বার যাওয়ার সময় ময়লাবাহী ট্রাক দিয়ে মোটর সাইকেল আরোহী’কে চাপা দেয়। এ সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত লোকজন তাকে ধাওয়া করলে সে কৌশলে গাড়ি থেকে নেমে লোকাল বাসে করে গাবতলীতে চলে যায়। গাবতলী থেকে ঐ দিনই সদরঘাট হয়ে লঞ্চে করে চাঁদপুরের হাইমচরে আত্মগোপন করে।      গ্রেফতারকৃত হানিফ আরো জানায় যে, সে প্রথমে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন এর গাড়ি মেরামত ওয়ার্কশপে মূল মেকানিকের সহযোগী হিসেবে কাজ করতো। গাড়ি পরিচালনার দায়িত্বপ্রাপ্ত একজন ব্যক্তির সাথে সখ্যতার সুবাদে প্রায় ৬/৭ বছর যাবত সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন ধরনের গাড়ি চালিয়ে আসছে। গত ৩ বছর যাবত সে সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন ধরণের হালকা ও ভারী যানবাহন চালাতো। সর্বশেষ গত এক বছর যাবত সে ময়লাবাহী ডাম্প ট্রাক চালাচ্ছে। সিটি কর্পোরেশনের তালিকাভুক্ত কর্মচারী/ চালক না হলেও তাকে ময়লাবাহী ভারী ডাম্প ট্রাকটি বরাদ্দ দেওয়া হয়। এজন্য তাকে কোনো নির্দিষ্ট বেতন দেওয়া না হলেও, গাড়ির জন্য বরাদ্দকৃত তেল হতে অতিরিক্ত তেল বিক্রিই তার আয়ের উৎস বলে  সে জানায়। ময়লাবাহী ডাম্প ট্রাক একটি ভারী যানবাহন, যা চালানোর জন্য পেশাদার ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রয়োজন হলেও তার নামে হালকা যানবাহন চালানোর একটা ড্রাইভিং লাইসেন্স আছে বলে জানায়।       গ্রেফতারকৃত চালক হানিফের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

র‌্যাব-৯, সিপিসি-১, (শায়েস্তাগঞ্জ ক্যাম্প), হবিগঞ্জ এর অভিযানে হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাট থানাধীন রাম ভাংগা ব্রীজ এলাকা হতে ১,০০০ (একহাজার) লিটার চোলাই মদ উদ্ধার।

র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-৯, সিলেট এর আওতাধীন সিপিসি-১ (শায়েস্তাগঞ্জ ক্যাম্প), হবিগঞ্জ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ২৬ নভেম্বর ২০২১ তারিখে অভিযান পরিচালনাকালীন আনুমানিক রাত্রী ১৯.৩০ ঘটিকার সময় হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাট থানাধীন ৩নং দেওড়গাছ ইউপির চুনারুঘাট হইতে সাতছড়ি গামী পাকা রাস্তার রাম ভাংগা ব্রীজের পশ্চিম পাশে চা-বাগানের ভিতর হইতে ১,০০০ (একহাজার) লিটার চোলাই মদ পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে।                  পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করার লক্ষ্যে উদ্ধারকৃত আলামত সমূহ হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাট থানায় জিডি মূলে হস্তান্তর করা হয়েছে।

র‌্যাব-১১ এর অভিযানে সোনারগাঁ হতে ১০ কেজি গাঁজাসহ ০২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার, প্রাইভেটকার জব্দ

গাপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১১, সিপিএসসি, আদমজীনগর, নারায়ণগঞ্জের একটি আভিযানিক দল গত ২৬ নভেম্বর ২০২১ খ্রিষ্টাব্দ সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ থানাধীন আষাঢ়িয়ারচর এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে। উক্ত অভিযানে ১০ কেজি গাঁজাসহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে হাতে-নাতে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত মাদক ব্যবসায়ীরা হলোঃ ১। মোঃ সায়েম (৩০) এবং ২। স্মৃতি আক্তার @ মিষ্টি (১৯)। এ সময় মাদক পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত একটি প্রাইভেটকার জব্দ করা হয়।     প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, গ্রেফতারকৃত আসামী মোঃ সায়েম ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা থানাধীন উড়াহাটি এলাকার তোফাজ্জল হোসেন এর ছেলে এবং অপর আসামী স্মৃতি আক্তার @ মিষ্টি গাজীপুর জেলার শ্রীপুর থানাধীন সিংড়াতলী এলাকার আবু সাঈদ এর মেয়ে। গ্রেফতারকৃত আসামীরা পরষ্পর যোগসাজশে দীর্ঘদিন যাবৎ চালক ও যাত্রীর ছদ্মবেশে প্রাইভেটকারযোগে বিভিন্ন অভিনব কায়দায় নিষিদ্ধ মাদকদ্রব্য গাঁজার বড় বড় চালান নিয়ে এসে রাজধানী ঢাকা এবং পাশর্বতী জেলা নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুরের বিভিন্ন এলাকায় সরাবরাহ করে আসছিল। মাদকের মতো সামাজিক ব্যাধির বিরুদ্ধে র‌্যাব-১১ এর অভিযান অব্যাহত থাকবে।         গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

ঢাকার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ এলাকা হতে ইজি বাইক ছিনতাইকারী চক্রের ০২ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

গত ২৬ নভেম্বর ২০২১ খ্রিঃ তারিখ আনুমানিক ভোর ০৬:৩০ থেকে রাত ২০:১৫ ঘটিকা পর্যন্ত র‌্যাব-১০ একটি আভিযানিক দল ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ থানাধীন বাঘাপুর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ব্যাটারি চালিত ইজি বাইক ছিনতাই করার অপরাধে ছিনতাইকারী চক্রের ০২ জন সদস্যকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিদের নাম ১। মোঃ আবুল কাশেম (৩৫) ও ২। দিপালী @ শাহিনুর (২৪) বলে জানা যায়।            গত ২৬/১১/২০২১ তারিখ আনুমানিক ভোর ০৫.২০ ঘটিকায় আসামী ১। মোঃ আবুল কাশেম (৩৫) ও ২। দিপালী @ শাহিনুর (২৪) স্বামী-স্ত্রীর পরিচয়ে ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ থানাধীন আব্দুল্লাপুর ষ্টান্ড হতে বাঘাপুর যাওয়ার উদ্দেশ্যে ইজিবাইক চালক মোঃ মন্টু মিয়া (৪৫) এর ইজ বাইকটি রিজার্ভ ভাড়া করে। ইজিবাইক চালক গ্রেফতারকৃত তাদের নিয়া ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ থানাধীন বাঘাপুর স্কুল এন্ড কলেজের সামনে পৌছালে পবিকল্পনা মোতাবেক আসামী মোঃ আবুল কাশেম (৩৫) নিজেকে ডিবি পরিচয় দিয়ে ইজিবাইক থেকে নেমে যায়। ইজিবাইক চালক পুনরায় ভাড়া চাইলে ঘটনাস্থলে দাড়িয়ে থাকা আসামী মোঃ ওমর ফারুক (৬০) ডিবির জ্যাকেট পরিহিত অবস্থায় এসে নিজেকে ডিবির উর্দ্ধতন কর্মকর্তা হিসাবে পরিচয় দেয়। পরবর্তীতে আসামী আবুল কাশেম তার সাথে থাকা খেলনা পিস্তল দিয়া ভয়ভীতি দেখিয়ে ব্যাটারি চালিত ইজিবাইকটি ছিনতাই করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে ইজি বাইক চালককের ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন সেখানে সমবেত হয়ে র‌্যাব-১০ কে জানায় র‌্যাব-১০ এর একটি আভিযানিক দল উক্ত এলাকা হতে ইজিবাইক ছিনতাইকারী ১। মোঃ আবুল কাশেম (৩৫) ও ২। দিপালী @ শাহিনুর (২৪)কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে আসামী মোঃ ওমর ফারুক (৬০) কৌশলে পালিয়ে যায়। এসময় তাদের নিকট থেকে ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত ০২ সেট নকল ডিবি পোশাকের জ্যাকেট, ০১টি প্লাষ্টিকের খেলনা পিস্তল, ০১ টি ভূয়া পুলিশ আইডি কার্ড, ০১ টি ওয়াকিটকি সেট, ০১টি ষ্টীলের হ্যান্ডক্যাপ জব্দ করা হয়।         পরবর্তীতে র‌্যাব সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামীদের দেয়া তথ্যমতে র‌্যাব-১০ এর উক্ত আভিযানিক দল একই তারিখ আনুমানিক ২০.১৫ ঘটিকায় ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ থানাধীন শুভাঢ্যা পশ্চিমপাড়া এলাকার রাশেদ এর অটো গ্যারেজে অভিযান পরিচালনা করে বিভিন্ন রংয়ের ০৯টি ছিনতাইকৃত ব্যাটারী চালিত ইজিবাইক ও ০১টি ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সা উদ্ধার করে।          প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, গ্রেফতারকৃত আসামীরা ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক ছিনতাইকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য। তারা বেশ কিছুদিন যাবত কেরাণীগঞ্জসহ আশেপাশের বিভিন্ন এলাকা হতে ব্যাটারী চালিত ইজিবাইক ছিনতাইর করত বলে জানা যায়। একই প্রক্রিয়ায় আরও ১৫/২০ টি ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক ছিনতাই করেছে বলে জানায়। জিজ্ঞাসাবাদে তারা আরও জানায় যে, তারা এসব ছিনতাইকৃত ব্যাটারী চালিত ইজিবাইকগুলো দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ থানাধীন শুভাঢ্যা পশ্চিমপাড়া এলাকার রাশেদ এর অটো গ্যারেজে লুকিয়ে রাখত এবং পরবর্তীতে ইজিবাইক মালিকদের সংবাদ দিয়ে ২০/২৫ হাজার টাকার বিনিময়ে ফিরিয়ে দিত। যারা টাকা দিতে পারত না তাদের ইজি বাইকের বিভিন্ন যন্ত্রাংশ আলাদা করে অন্যত্র বিক্রি করে দিত বলে জানা যায়।         গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

ডিএমপি, ঢাকার মিরপুর থানা এলাকা হতে অপহরনের ৭২ ঘন্টার মধ্যে ভিকটিম উদ্ধারসহ অপহরনকারী ০১ জন গ্রেফতার।

র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ইং ২৬/১১/২০২১ তারিখ রাত ২১.০০ ঘটিকার সময় ঢাকা মহানগরীর মিরপুর মডেল থানাধীন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ০১ জন ভিকটিম উদ্ধারসহ নিম্নোক্ত অপহরনকারীকে গ্রেফতার করতে সমর্থ হয়ঃ     (ক)     মোঃ আল-আমিন (২৮), জেলা-গোপালগঞ্জ।      অপরাধের কৌশল ও বিস্তারিতঃ     সকলের উপস্থিতিতে ধৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত আসামী র‌্যাব সদস্যদের নিকট স্বীকার করে যে, সে গত ২৩/১১/২০২১ ইং তারিখ সকাল অনুমান ১১.০০ ঘটিকার সময় ঘটনাস্থল ঢাকা জেলার সাভার মডেল থানাধীন কাউন্দিয়া প্রি-ক্যাডেট দাখিল মাদ্রাসা মেইন গেইটের সামনে থেকে ভিকটিমকে জোর পূর্বক একটি অজ্ঞাত নম্বরের সিএনজিতে উঠিয়ে অপহরন করে নিয়ে যায়।     র‌্যার সদস্যরা ভিকটিমকে জিজ্ঞাসাবাদে ভিকটিম র‌্যাবকে জানায় যে, গত ইং ২৩/১১/২০২১ তারিখ ধৃত বর্ণিত আসামীসহ অজ্ঞাতনামা আরো ২/৩ জনের সহায়তায় জোরপূর্বক অপহরন করে মিরপুর মডেল থানা এলাকায় আসামীর দুঃসম্পর্কের ভাইয়ের বাসায় রেখে ইং ২৩/১১/২০২১ তারিখ হতে ইং ২৬/১১/২০২১ তারিখ পর্যন্ত ভিকটিমকে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি প্রর্দশন করে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক একাধিকবার ধর্ষন করেছে।     গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন এবং এই ধরনের অপহরনকারীর বিরুদ্ধে র‌্যাবের জোড়ালো অভিযান অব্যাহত থাকবে।

র‌্যাব-১১ এর অভিযানে ০১ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার।

২৬ নভেম্বর ২০২১ তারিখ ১৭:২০ ঘটিকায় র‌্যাব-১১ এর একটি আভিযানিক দল নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর থানাধীন মদনপুর এলাকা হতে মাদক ব্যবসায়ী মোঃ সিরাজ মন্ডল (৪৮), পিতা-মৃত আব্দুল লতিফ, সাং-বেলদিয়া, থানা-গফরগাঁও, জেলা-ময়মনসিংহকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীর হেফাজত হতে ফেন্সিডিল- ১৬ বোতল উদ্ধার এবং মটরসাইকেল ০১টি জব্দ করা হয়।      গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় যে,  কুমিল্লা হতে নারায়ণগঞ্জের উদ্দেশ্যে একটি মটরসাইকেল করে কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী মাদকদ্রব্য ফেন্সিডিল নিয়ে আসতেছে। এ প্রেক্ষিতে নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর থানাধীন মদনপুর সাকিনস্থ রাফি ফিলিং স্টেশন এর সামনে মহাসড়কের চেকপোষ্ট স্থাপন করা হয়। চেকপোষ্ট করাকালীন একটি মটরসাইকেল দ্রæত গতিতে আসতে দেখে মটরসাইকেলটিকে থামানোর জন্য সংকেত দিলে মটরসাইকেলটি গতি বাড়িয়ে পালানোর চেষ্টা করে এবং র‌্যাবের চৌকস দলের সহায়তায় মটরসাইকেলে থাকা ০১ (এক) জন ব্যক্তিকে আটক করা হয়। পালানোর কারণ জিজ্ঞেসা করলে সন্তোষজনক উত্তর দিতে না পারায় তাকে সন্দেহ পূর্বক তল্লাশী করা হয় এবং ফেন্সিডিল- ১৬ বোতল পাওয়া যায়।      প্রাথামিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, সে দীর্ঘদিন যাবৎ অবৈধভাবে মাদকদ্রব্য ফেন্সিডিল দেশের বিভিন্ন স্থানে ক্রয়-বিক্রয় করে আসছিল। মাদকের করাল গ্রাস থেকে যুব সমাজ তথা দেশকে বাঁচাতে র‌্যাব-১১ এর অভিযান অব্যাহত থাকবে।      উপরোক্ত বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

সহজে ইনস্টল করুন, রিপোর্ট করুন, নিরাপদ থাকুন

রিপোর্ট টু র‌্যাব মোবাইল অ্যাপস

সন্ত্রাসী আক্রমন

র‍্যাবকে সন্ত্রাসী আক্রমনের তথ্য দিতে পারবেন

সন্ত্রাসী তথ্য

র‍্যাবকে সন্ত্রাসীর তথ্য দিতে পারবেন

সামাজিক যোগাযোগ

র‍্যাবকে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম গুলতে অপরাধের তথ্য দিতে পারবেন

অপহরন

র‍্যাবকে অপহরনের তথ্য দিতে পারবেন

নিখোঁজ ব্যাক্তির তথ্য

র‍্যাবকে নিখোঁজ ব্যাক্তির তথ্য দিতে পারবেন

খুন

র‍্যাবকে খুনের তথ্য দিয়ে সাহায্য করতে পারবেন

ডাকাতি

র‍্যাবকে ডাকাতির তথ্য দিয়ে সাহায্য করতে পারবেন

মাদক

র‍্যাবকে মাদকের তথ্য দিতে পারবেন

সম্মাননা



  • অতিরিক্ত আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ বিপিএম(বার)

    মহাপরিচালক

    র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তর

    বিপিএম - ২০১৯

  • পুলিশ সুপার মুহম্মদ মহিউদ্দিন ফারুকী বিপিএম

    র‌্যাব-২

    বিপিএম - ২০১৯

  • সাজেন্ট মোঃ শহীদুল ইসলাম,বিপিএম

    ইন্ট উইং

    র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তর

    বিপিএম - ২০১৯

  • সৈনিক মোঃ রাকিব হোসেন,বিপিএম

    র‌্যাব-১

    বিপিএম - ২০১৯

  • কর্নেল তোফায়েল মোস্তফা সরোয়ার পিএসসি, বিপিএম(সেবা)

    অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশনস্)

    র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তর

    বিপিএম (সেবা) - ২০১৯

  • লেঃ কর্নেল মোঃ মাহাবুব আলম বিপিএম(বার),বিপিএম(সেবা),পিপিএম

    অপস্ /ইন্ট উইং

    র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তর

    বিপিএম (সেবা) - ২০১৯

  • লেঃ কর্নেল মীর আসাদুল আলম, বিপিএম (সেবা)

    এয়ার উইং

    র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তর

    বিপিএম (সেবা) - ২০১৯

  • মেজর শাহীন আজাদ,বিপিএম, পিপিএম,জি+

    ইন্ট উইং

    র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তর

    পিপিএম - ২০১৯

  • মেজর এস এম সুদীপ্ত শাহীন,পিপিএম(বার)

    অপস উইং

    র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তর

    পিপিএম - ২০১৯

  • মেজর খান সজিবুল ইসলাম,পিপিএম

    র‌্যাব-৮

    পিপিএম - ২০১৯

ফটো গ্যালারি

ভিডিও গ্যালারি

র‌্যাব ব্যাটালিয়ন সমূহের তথ্য

র‌্যাব ব্যাটালিয়ন সমূহ