Home » News Room » র‌্যাবের অভিযানে সিলেটের বিশ্বনাথ থেকে নরসিংদীর শিবপুরের চাঞ্চল্যকর কিশোরী আজিজা হত্যা মামলার প্রধান আসামী বিউটি বেগমসহ ০২(দুই) জন গ্রেফতার।

র‌্যাবের অভিযানে সিলেটের বিশ্বনাথ থেকে নরসিংদীর শিবপুরের চাঞ্চল্যকর কিশোরী আজিজা হত্যা মামলার প্রধান আসামী বিউটি বেগমসহ ০২(দুই) জন গ্রেফতার।

১। র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সবসময়ই অবৈধ অস্ত্র ব্যবসায়ী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী, খুনি, মাদক ও মাদক ব্যবসায়ী, বিভিন্ন সদস্যদের গ্রেফতার পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের ক্ষেত্রে অত্যন্ত অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। র‌্যাবের সৃষ্টিকাল থেকে চাঁদাবাজ, সন্ত্রাস, খুনি, বিপুল পরিমাণ অবৈধ অস্ত্র গোলাবারুদ উদ্ধার, ছিনতাইকারী, চোরাকারবারী, অপহরণ, মানব পাচারকারী ও প্রতারকদের গ্রেফতার করে সাধারণ জনগণের মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে সংগঠিত চাঞ্চল্যকর অপরাধে জড়িত অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে র‌্যাব জনগনের সুনাম অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

২। গত ২৭ অক্টোবর ২০১৭ খ্রিঃ রাত অনুমান ০৯.০০ ঘটিকার সময় নরসিংদী জেলার শিবপুর থানাধীন ভিটি খৈনকুট গ্রামের ১৩ বৎসরের কিশোরী আজিজা আক্তারকে গ্রামের দোকান থেকে কেরোসিন তেল নিয়ে বাড়ী আসার পথে রবিউল্লা ফরাজীর বাগানে পূর্ব শূত্রতার জের ধরে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে একই গ্রামের ১। বিউটি (২৬), স্বামী- আব্দুস সালাম, অন্যান্য সহযোগী ২। রুবেল মিয়া (২৭), ৩। তমুজা বেগম (৫৫), ৪। সানোয়ারা বেগম (৫০)সহ আরো অজ্ঞাতনামা ০৩(তিন) জন পুরুষ পরস্পর যোগসাজসে আজিজাকে ধরে নিয়ে একটি বেল গাছের সাথে চিকন রশি দিয়ে বাঁধে এবং তার গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন লাগিয়ে পালিয়ে যায়। আগুনে বেল গাছে বাঁধা রশি পুড়ে গেলে সে ছুটে মোজাম্মেলের মুরগীর ফার্মের কাছে মাটিতে পড়ে আর্তনাদ করতে থাকে। আগুনের লেলিহানে আজিজার শরীর, মাথার চুল ও কাপড় পুড়ে যায়। অতঃপর স্থানীয় লোকজন চিকিৎসার জন্য আজিজাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২৮ অক্টোবর ২০১৭ খ্রিঃ রাত ০১.০০ ঘটিকার সময় ভর্তি করে। সেখানে উপস্থিত ডাক্তারসহ অন্যান্যদের কাছে বর্ণিত আসামীদের নিষ্ঠুরতার লোমহর্ষক বর্ণনা দেয়। অতঃপর, চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ০৫.০০ ঘটিকার সময় আজিজা মারা যায়। উক্ত ঘটনার প্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট থানায় একটি নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়। আজিজার এই মৃত্যুর নিষ্ঠুরতা ও নির্মমতা সারা দেশবাসীকে ব্যথিত করেছে যা বাংলাদেশের সকল মিডিয়া, টক্শো, সামাজিক গণমাধ্যমে ধারাবাহিক ভাবে প্রচারিত হচ্ছে এবং জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে বিচারের জোর দাবী অব্যাহত আছে। র‌্যাব-৯, সিলেট এর একটি আভিযানিক দল বিষয়টি নিয়ে কাজ করে গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে মামলার ০১নং আসামী বিউটি ও ০৪ নং আসামী সানোয়ারা বেগম ঘটনার পরপরই সিলেটে পালিয়ে আত্মগোপন করে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে অদ্য ৩১ অক্টোবর ২০১৭ খ্রিঃ রাত ০৩.০০ ঘটিকার সময় র‌্যাব-৯ এর একটি অভিযানিক দল সিলেট জেলার বিশ্বনাথ থানাধীন মীরেরগাঁও গ্রাম এলাকায় পরিচালনা করে (১) বিউটি বেগম (২৬), স্বামী-আঃ সালাম, গ্রামঃ ভিটি খৈনকুট (২) সানোয়ারা বেগম (৫০), স্বামী-বাচ্চু মিয়া, গ্রাম- উত্তর কামালপুর, সর্বথানা-শিবপুর, জেলা-নরসিংদীদ্বয়কেগ্রেফতার করে।

৩। উপরোক্ত বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

র‌্যাব কর্তৃক প্রদত্ত পরামর্শ

***জমি জমা বা টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোন অভিযোগ র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***ব্যক্তিগত বা পারিবারিক কোন সমস্যা র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***কোন অভিযোগ করার পূর্বে আপনার এলাকার জন্য দায়িত্বপূর্ন র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্প সম্পর্কে জানুন ও যথাযথ র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্পে অভিযোগ করুন ।
***আপনার এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে র‌্যাব কে তথ্য প্রদান করে র‌্যাবকে সহযোগীতা করুন । আপনার পরিচয় সম্প‍ুর্ন্ন গোপন রাখা হবে । ***বেশী করে গাছ লাগান অক্সিজেনের অভাব তাড়ান
***ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের আগুন নিয়ে খেলতে দিবেন না ।
***যাত্রা পথে অপরিচিত লোকের দেওয়া বিছু খাবেন না । ভ্রমণকালে সহযোগী বা অন্য কাহারো নিকট হইতে পান, বিড়ি, সিগারেট, চা বা অন্য কোন পানীয় খাওয়া/গ্রহন করা হইতে বিরত ‍থাকা আবশ্যক ।

সাম্প্রতিক ভিডিও