Home » News Room » র‌্যাবের অভিযানে সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়া থানায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর গাড়ী বহরে হামলার এজাহারনামীয় আসামী খালিদ মঞ্জুর @ রোমেল (৩৮) গ্রেফতার।

র‌্যাবের অভিযানে সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়া থানায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর গাড়ী বহরে হামলার এজাহারনামীয় আসামী খালিদ মঞ্জুর @ রোমেল (৩৮) গ্রেফতার।

১।    র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সবসময়ই অবৈধ অস্ত্র ব্যবসায়ী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী, খুনী, মাদক ও মাদক ব্যবসায়ী, বিভিন্ন সদস্যদের গ্রেফতার পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের ক্ষেত্রে অত্যন্ত অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। র‌্যাবের সৃষ্টিকাল থেকে এই পর্যন্ত বিপুল পরিমান অবৈধ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধারসহ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী, অসাধু, দুস্কৃতিকারী ধূর্ত এবং কৌশলী অবৈধ অস্ত্র ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার করে সাধারণ জনগণের মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

২।    এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-১২, এর একটি আভিযানিক দল অদ্য ০৯ জুন ২০১৭ তারিখ আনুমানিক ০২২০ ঘটিকায় সিরাজগঞ্জ জেলার সলংগা থানাধীন সিরাজগঞ্জ রোড হইতে নলকা মহাসড়ক সংলগ্ন পাঁচলিয়া বাজারস্থ পাঁকা রাস্তার উপর অভিযান পরিচালনা করে সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়া থানায় ‘‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর গাড়ী বহরে হামলা’’ মামলায়  এজাহারনামীয় ০২ নং এবং ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী খালিদ মঞ্জুর @ রোমেল (৩৮), পিতা- মৃত এমএ গোফরান, সাং- কাদই বাদলা, থানা- শাহজাদপুর, জেলা- সিরাজগঞ্জ এ/পি তুলশী ডাঙ্গা, থানা- কলারোয়া, জেলা- সাতক্ষীরাকে গ্রেফতার করে।

৩।    প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামী জানায় যে, সে সূত্রোক্ত মামলার ০২নং আসামী। গত ২০০২ সালের ৩০ আগষ্ট কলারোয়া উপজেলার এক মুক্তিযোদ্ধার ধর্ষিত স্ত্রীকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে দেখতে যান তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী ও বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। হাসপাতাল থেকে তাকে দেখে গাড়ির বহর নিয়ে তিনি যশোর যাচ্ছিলেন। গাড়িটি সাতক্ষীরা -যশোর সড়কের কলারোয়া উপজেলা সদরের বিএনপি পার্টি অফিসের সামনে পৌঁছালে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে মামলার অন্যতম প্রধান আসামি হাবিবুর রহমানের নির্দেশে অন্যান্য আসামিরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে গাড়ি বহরে গুলি চালায়। একই সাথে তাকে লক্ষ্য করে বোমা হামলা চালানো হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এতে অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পান। এ সময় সাবেক এমপি মুজিবুর রহমান ও কয়েকজন সাংবাদিক আহত হন। এ ঘটনায় কলারোয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোসলেম উদ্দীন বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। এই মামলার প্রধান আসামী ছিলেন খালিদ মঞ্জুর @ রোমেল। গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়া থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

৪।    গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

সাম্প্রতিক ভিডিও




র‌্যাব কর্তৃক প্রদত্ত পরামর্শ

***জমি জমা বা টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোন অভিযোগ র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***ব্যক্তিগত বা পারিবারিক কোন সমস্যা র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***কোন অভিযোগ করার পূর্বে আপনার এলাকার জন্য দায়িত্বপূর্ন র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্প সম্পর্কে জানুন ও যথাযথ র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্পে অভিযোগ করুন ।
***আপনার এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে র‌্যাব কে তথ্য প্রদান করে র‌্যাবকে সহযোগীতা করুন । আপনার পরিচয় সম্প‍ুর্ন্ন গোপন রাখা হবে । ***বেশী করে গাছ লাগান অক্সিজেনের অভাব তাড়ান
***ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের আগুন নিয়ে খেলতে দিবেন না ।
***যাত্রা পথে অপরিচিত লোকের দেওয়া বিছু খাবেন না । ভ্রমণকালে সহযোগী বা অন্য কাহারো নিকট হইতে পান, বিড়ি, সিগারেট, চা বা অন্য কোন পানীয় খাওয়া/গ্রহন করা হইতে বিরত ‍থাকা আবশ্যক ।