Home » News Room » র‌্যাবের অভিযানে শীতলক্ষা নদী হতে ৪ হাজার ৬২০ লিটার চোরাই তেলসহ গ্রেফতার ০৬ জন।

র‌্যাবের অভিযানে শীতলক্ষা নদী হতে ৪ হাজার ৬২০ লিটার চোরাই তেলসহ গ্রেফতার ০৬ জন।

১। র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধ এর উৎস উদ্ঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইন শৃংখলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বর্তমানে র‌্যাব-১১ এর দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় চুরি, ছিনতাই, অপহরণ এবং দুষ্কৃতিকারী চক্রের দৌরাত্ব উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে চোরাই মালামাল উদ্ধারসহ অপরাধীদের গ্রেফতারে সার্বক্ষনিকভাবে র‌্যাব অভিযান পরিচালনা করে আসছে।

২। এরই ধারাবাহিকতায়, র‌্যাব-১১ এর একটি আভিযানিক দল ১৭ মে ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দে রাত ০১:৩০ হতে ০৩:১৫ ঘটিকা পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জ জেলার সদর মডেল থানাধীন শীতলক্ষা নদীর ৫নং ঘাট এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ২১টি তেলের ড্রামে প্রতিটি ড্রামে ২২০ লিটার করে সর্বমোট ৪ হাজার ৬২০ লিটার চোরাই ডিজেল তেল উদ্ধার করা হয় এবং চোরাই কাজে ব্যবহৃত ১৯টি খালি ড্রাম ও ০১টি ইঞ্জিন চালিত নৌকা উদ্ধার করা হয়। যার আনুমানিক মূল্য ৩,০০,০০০/-(তিন লক্ষ) টাকা। এসময় চোরাই চক্রের সক্রিয় সদস্য ১। আবুল হোসেন (৪৫), ২। মোঃ মাসুম গাজী (৩৭), ৩। মোঃ আলাল মিয়া (৬০), ৪। মোঃ মজিবুর রহমান (৫৫), ৫। আব্দুল বারেক (৫২) ও ৬। মোঃ ফয়সাল (২০) দেরকে গ্রেফতার করা হয়। অভিযান চলাকালে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে চোরাই চক্রের সদস্য ১। মোঃ দুলাল (৪৫) ও ২। মোঃ আব্দুল খান (৬৫) কৌশলে পালিয়ে যায়। তারা দীর্ঘদিন ধরে ৫নং ঘাট এলাকায় শীতলক্ষা নদী দিয়ে চলমান বিভিন্ন জাহাজ হতে সুকৌশলে তেল চুরি করে চোরাই তেলের ব্যবসা করে আসছে। তাদের এই চোরাই তেল ঢাকার বিভিন্ন তেল ব্যবসায়ীদের কাছে সরবরাহ করত।

৩। গ্রেফতারকৃতদেরকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ ও অনুসন্ধানে জানা যায়, নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানাধীন ৫নং ঘাট এলাকায় শীতলক্ষা নদীতে বেশ কয়েকটি চোরাই তেলের সিন্ডিকেট গড়ে উঠেছে। এই সিন্ডিকেট ৫নং ঘাট শীতলক্ষা নদী এলাকায় চলমান জাহাজ হতে সুকৌশলে দীর্ঘদিন যাবৎ তেল চুরি আসছে। চোরাই চক্র এই তেলের সাথে ভেজাল তেল মিশিয়ে বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের কাছে এই তেল সরবরাহ করে থাকে। এই তেল ব্যবহার করে গাড়ীর ইঞ্জিন ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হচ্ছে। এই চোরাই সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে র‌্যাবের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

৪। উপরোক্ত বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে ।

সাম্প্রতিক ভিডিও




র‌্যাব কর্তৃক প্রদত্ত পরামর্শ

***জমি জমা বা টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোন অভিযোগ র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***ব্যক্তিগত বা পারিবারিক কোন সমস্যা র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***কোন অভিযোগ করার পূর্বে আপনার এলাকার জন্য দায়িত্বপূর্ন র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্প সম্পর্কে জানুন ও যথাযথ র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্পে অভিযোগ করুন ।
***আপনার এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে র‌্যাব কে তথ্য প্রদান করে র‌্যাবকে সহযোগীতা করুন । আপনার পরিচয় সম্প‍ুর্ন্ন গোপন রাখা হবে । ***বেশী করে গাছ লাগান অক্সিজেনের অভাব তাড়ান
***ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের আগুন নিয়ে খেলতে দিবেন না ।
***যাত্রা পথে অপরিচিত লোকের দেওয়া কিছু খাবেন না । ভ্রমণকালে সহযোগী বা অন্য কাহারো নিকট হইতে পান, বিড়ি, সিগারেট, চা বা অন্য কোন পানীয় খাওয়া/গ্রহন করা হইতে বিরত ‍থাকা আবশ্যক ।