Home » News Room » র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর গুলশান হতে ৭৩৮০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ০৫ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার ॥ মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত প্রাইভেটকার জব্দ।

র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর গুলশান হতে ৭৩৮০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ০৫ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার ॥ মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত প্রাইভেটকার জব্দ।

Press - 2 (RAB-1) Pic (4)

১। মাদকাসক্তি একটি বহুমাত্রিক সামাজিক সমস্যা। যে যুব সমাজ দেশ ও জাতির আগামী দিনের চালিকা শক্তি, তাদের একটি অংশ মাদকাসক্তির কবলে পড়ে নানা ধরনের অপরাধমূলক কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ছে। মাদকাসক্ত তরুনরা কর্মশক্তি, মেধা ও সৃজনশীলতা হারিয়ে নৈতিকতা, মূল্যবোধ ও আদর্শ হতে বিচ্যূত হয়, যা দেশ ও জাতির জন্য বয়ে আনে অপূরণীয় ক্ষতি। র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সবসময়ই মাদক উদ্ধারের ক্ষেত্রে অত্যন্ত অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে এবং এই পযন্ত বিপুল পরিমান দেশী/বিদেশী অবৈধ মাদক উদ্ধার করে সাধারণ জনগনের মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

২। চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে ধারাবাহিকতায় গত ২৫ মার্চ ২০১৯ ইং তারিখ আনুমানিক ২২২০ ঘটিকায় র‌্যাব-১, উত্তরা, ঢাকা এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, রাজধানীর গুলশান থানাধীন কালাচাঁদপুর পশ্চিম পাড়া এলাকায় কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী মাদকদ্রব্য বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে। প্রাপ্ত সংবাদের ভিত্তিতে আভিযানিক দলটি গুলশান থানাধীন কালাচাঁদপুর পশ্চিম পাড়ার অর্ন্তগত আকনপাড়ায় অভিযান পরিচালনা করে মাদক ব্যবসায়ী ১) রিপন কান্তি চাকমা (৩৫), পিতা- মৃত রংচাও চাকমা, মাতা- মৃত মুচিং চাকমা, সাং-তেলখোলা (চাকমা পাড়া), থানা-উখিয়া, জেলা- কক্সবাজার, ২) মোঃ ইসমাইল হোসেন (৪৫), পিতা- মৃত তাইজেল মিয়া, মাতা-তহমিনা খাতুন, সাং-বিরামপুর, (পশ্চিম পাড়া), থানা-কোতয়ালী, জেলা-যশোর, ৩) মোঃ নুরুল ইসলাম (৩৫), পিতা-মৃত কলিমুদ্দিন, মাতা- সমলা খাতুন, সাং-চন্দ্রনগর, থানা-ইশ্বরগঞ্জ, জেলা- ময়মনসিংহ, ৪) সামু সিং (২৫), পিতা- মৃত সান্দু চাকমা, মাতা-উপা সিং, সাং-তেলখোলা (চাকমা পাড়া), থানা-উখিয়া, জেলা- কক্সবাজার, ৫) মোসাঃ আয়শা আক্তার আশা (১৯), পিতা-মোঃ আজগর আলী, মাতা-লাকি বেগম , সাং- যশোর রেইল গেট, পশ্চিম পাড়া’দেরকে গ্রেফতার করে। এসময় ধৃত আসামীদের প্রাইভেটকারে লুকানো ৭,৩৮০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ০৬ টি মোবাইল ফোন ও মাদক বিক্রত নগদ ৪,৫০,৩০০/- টাকা উদ্ধার করা হয় এবং মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত প্রাইভেটকারটি জব্দ করা হয়।

৩। গ্রেফতারকৃত রিপন’কে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, সে প্রায় ২২ বছর আগে কাজের সন্ধানে কক্সবাজার হতে ঢাকা আসে। ঢাকায় আসার পর সে গার্মেন্টস হতে কাপড় সংগ্রহ করে রাজধানীর ফুটপাতে বিক্রি করা শুরু করে। ০১ বছর পূর্বে চট্টগ্রামের মাদক ব্যবসায়ী আমিন এর সাথে তার পরিচয় হয়। আমিন তাকে ঢাকায় মাদক বিক্রির কাজে সহযোগিতা করতে বললে, অধিক টাকার লোভে সে আমিনের প্রস্তাবে রাজি হয়ে মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ে। সে নিজও ইয়াবা সেবন করে বলে স্বীকার করে। আমিন চট্টগ্রাম হতে মাদকের চালান ঢাকায় রিপনের বাসায় নিয়ে আসত। রিপনের বাসা থেকে ঢাকা ও তার আশে পাশের মাদক ব্যবসায়ীদের নিকট তা হস্তান্তর করত। উল্লেখিত ইয়াবার চালানটি রিপনের প্রাইভেটকারে করে চট্টগ্রাম হতে ঢাকায় নিয়ে আসা হয় বলে ধৃত আসামী রিপন জানায়।

Press - 2 (RAB-1) Pic (2) (2)

৪। গ্রেফতারকৃত ইসমাইল’কে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, সে যশোর শহরে ইজিবাইক চালাত। সে ০১ বছর পূর্বে ঢাকায় এসে মোল্লারটেক এলাকায় কলা ব্যবসা শুরু করে। গ্রেফতারকৃত আসামী রিপনের মাধ্যমে ০৬ মাস পূর্বে সে মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ে। সে নিজও ইয়াবা সেবন করে বলে স্বীকার করে। সে কক্সবাজার হতে ইয়াবার চালান গাড়ীতে করে ঢাকায় নিয়ে আসত। ঢাকা আনার পর তা রিপনের নিকট হস্তান্তর করত।
৫। গ্রেফতারকৃত আয়েশা জানায় যে, তার স্বামী একজন ট্রাকের হেলপার। ০৬ মাস ধরে স্বামীর সাথে পারিবারিক কলহ চলতে থাকায় সে কাজের সন্ধানে ঢাকায় আসে। গ্রেফতারকৃত আসামী ইসমাইল তাকে বিয়ের ও কাজের প্রতিশ্র“তি দিয়ে ঢাকায় নিয়ে আসে। তারা দুজন কালাচাঁদপুরের বাসায় স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে থাকলেও তাদের বিবাহ হয়নি। ইসমাইল তাকে কাজের কথা বলে ইয়াবা ব্যবসায় যুক্ত করে। উল্লেখিত ইয়াবার চালানটি তারা দুজন কক্সবাজার থেকে নিয়ে এসেছে বলে জানায়।

৬। ধৃত নুরুল ইসলাম পেশায় একজন কলা বিক্রেতা। প্রায় ০৪ বছর ধরে সে ঢাকার মোল্লারটে এলাকায় কলা ব্যবসা করে আসছে। গ্রেফতারকৃত আসামী ইসমাইল সম্পর্কে তার বিয়াই হয়। সে ইসমাইলের মাধ্যমে মাদক ব্যবসায় যুক্ত হয়। সে তার নিজ এলাকায় মাদকের খুচরা বিক্রেতা।

৭। ধৃত মামুন সিং পেশায় একজন মধু বিক্রেতা। বিগত ১১ বছর ধরে সে বরিশালে মধু ও সবজি বিক্রি করে আসছে। গ্রেফতারকৃত আসামী রিপন সম্পর্কে তার ভাই হয়। রিপন তাকে অধিক টাকার লোভ দেখিয়ে মাদক ব্যবসায় যুক্ত করে। সে বর্ণিত এলাকায় মাদকের খুচরা বিক্রেতা।

৮। উপরোক্ত বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

সাম্প্রতিক ভিডিও




র‌্যাব কর্তৃক প্রদত্ত পরামর্শ

***জমি জমা বা টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোন অভিযোগ র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***ব্যক্তিগত বা পারিবারিক কোন সমস্যা র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***কোন অভিযোগ করার পূর্বে আপনার এলাকার জন্য দায়িত্বপূর্ন র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্প সম্পর্কে জানুন ও যথাযথ র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্পে অভিযোগ করুন ।
***আপনার এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে র‌্যাব কে তথ্য প্রদান করে র‌্যাবকে সহযোগীতা করুন । আপনার পরিচয় সম্প‍ুর্ন্ন গোপন রাখা হবে । ***বেশী করে গাছ লাগান অক্সিজেনের অভাব তাড়ান
***ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের আগুন নিয়ে খেলতে দিবেন না ।
***যাত্রা পথে অপরিচিত লোকের দেওয়া কিছু খাবেন না । ভ্রমণকালে সহযোগী বা অন্য কাহারো নিকট হইতে পান, বিড়ি, সিগারেট, চা বা অন্য কোন পানীয় খাওয়া/গ্রহন করা হইতে বিরত ‍থাকা আবশ্যক ।