Home » News Room » র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর হাজারীবাগ এলাকা থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন “হিযবুত তাহরীর” তিনজন সক্রিয় সদস্যকে জিহাদী বই ও লিফলেটসহ গ্রেফতার।

র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর হাজারীবাগ এলাকা থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন “হিযবুত তাহরীর” তিনজন সক্রিয় সদস্যকে জিহাদী বই ও লিফলেটসহ গ্রেফতার।

১।    র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) বাংলাদেশের মানুষের কাছে একটি আস্থা ও বিশ্বাসের প্রতীক। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে র‌্যাব বাংলাদেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষা করার জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে। বিভিন্ন সময় বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বিভিন্ন জঙ্গী সংগঠনের মূল হোতা ও সক্রিয় সদস্যদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে অভ্যন্তরীন শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষায় এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে র‌্যাব। এই প্রতিষ্ঠান মানুষের কাছে আস্থা ও নিরাপত্তার অন্য নাম হিসাবে গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে।

২।    সাম্প্রতিক সময়ে র‌্যাবের আভিযানিক ও গোয়েন্দা কর্মকান্ডের মাধ্যমে পরিলক্ষিত হয় যে, নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন “হিযবুত তাহরীর” এর লিফলেট বিতরণসহ অন্যান্য কার্যক্রম বৃদ্ধি পেয়েছে। তারা সাধারণ মানুষের সাথে মিশে দেশের সার্বভৌমত্বের পরিপন্থী উগ্রপন্থী মতামত লিফলেট আকারে প্রকাশ এবং তা বিতরণ করাসহ তাদের জঙ্গীবাদের মতাদর্শ গোপনে প্রচার করে আসছে। সম্প্রতি কিছু বিপথগামী লোক ধর্মীয় অপব্যাখ্যার মাধ্যমে যুব সমাজকে জঙ্গীবাদের দিকে অগ্রসর করানোর অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। এই সকল ব্যক্তিদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার লক্ষ্যে র‌্যাব-২ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

৩।     এরই ধারাবাহিকতায় গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-২ এর একটি আভিযানিক দল অদ্য ১৪/০৩/২০১৮ খ্রিঃ ০১.৪৫ ঘটিকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, হাজারীবাগ থানাধীন বছিলা ওয়েষ্ট ধানমন্ডি হাউজিং, রোড নং-৪, বাড়ি নং-১, ৪র্থ তলা বাসার, ব্লক-বি’তে সরকার ঘোষিত নিষিদ্ধ জঙ্গী সংগঠন “হিযবুত তাহরীর” কতিপয় সক্রিয় সদস্যরা অবস্থান করছে। গোয়েন্দাসূত্রে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাবের আভিযানিক টিম অভিযান পরিচালনা করে ১। মোঃ রিয়াদ হোসেন (২৪) পিতা-মোঃ নুরুল আমীন, সাং-চাঁদখালী, থানা- লক্ষীপুর সদর, জেলা- লক্ষীপুর, ২। জিহাদুল ইসলাম (১৯) পিতা-মোঃ নুরুল আমীন, সাং-চাঁদখালী, থানা- লক্ষীপুর সদর, জেলা- লক্ষীপুর, ৩। শরীফ হোসেন (২৩) পিতা- আবু তাহের, সাং- খন্দকারপুর বকশি ব্যাপারী বাড়ী, থানা- লক্ষীপুর সদর, জেলা- লক্ষীপুরদেরকে ০১টি  জিহাদী বই, ৪০টি লিফলেট, ০১টি ল্যাপটপ ও ০৪টি মোবাইল সেট সহ  গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে জানায় যে, তারা দেশের বর্তমান শাসন ব্যবস্থার পরিবর্তন ঘটিয়ে খিলাফত রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে গোপনে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন “হিযবুত তাহরীর বাংলাদেশ” কে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর অন্তরালে নাশকতার পরিকল্পনা করার জন্য সমবেত হয়েছিল। এছাড়াও গ্রেফতারকৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে আরো অনেক চাঞ্চল্যকর ও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে।

৪।    গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন।

সাম্প্রতিক ভিডিও




র‌্যাব কর্তৃক প্রদত্ত পরামর্শ

***জমি জমা বা টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোন অভিযোগ র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***ব্যক্তিগত বা পারিবারিক কোন সমস্যা র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***কোন অভিযোগ করার পূর্বে আপনার এলাকার জন্য দায়িত্বপূর্ন র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্প সম্পর্কে জানুন ও যথাযথ র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্পে অভিযোগ করুন ।
***আপনার এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে র‌্যাব কে তথ্য প্রদান করে র‌্যাবকে সহযোগীতা করুন । আপনার পরিচয় সম্প‍ুর্ন্ন গোপন রাখা হবে । ***বেশী করে গাছ লাগান অক্সিজেনের অভাব তাড়ান
***ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের আগুন নিয়ে খেলতে দিবেন না ।
***যাত্রা পথে অপরিচিত লোকের দেওয়া বিছু খাবেন না । ভ্রমণকালে সহযোগী বা অন্য কাহারো নিকট হইতে পান, বিড়ি, সিগারেট, চা বা অন্য কোন পানীয় খাওয়া/গ্রহন করা হইতে বিরত ‍থাকা আবশ্যক ।