Home » News Room » র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর তেজগাঁও এলাকা হতে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবি “সারোয়ার-তামিম গ্রুপ” এর ‘ব্রিগেড আদ্Ñদার-ই-কুতনী’র সক্রিয় সদস্য রিয়াসাত এলাহী চৌধুরী @ আবু হুরায়রা গ্রেফতার।

র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর তেজগাঁও এলাকা হতে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবি “সারোয়ার-তামিম গ্রুপ” এর ‘ব্রিগেড আদ্Ñদার-ই-কুতনী’র সক্রিয় সদস্য রিয়াসাত এলাহী চৌধুরী @ আবু হুরায়রা গ্রেফতার।

১।    এলিট ফোর্স র‌্যাব সৃষ্টির সূচনালগ্ন থেকেই জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ এর বিরুদ্ধে আপোষহীন অবস্থানে থেকে নিরলস ভাবে কাজ করে আসছে। র‌্যাবের কর্ম তৎপরতার কারণেই সারাদেশে একযোগে বোমা বিস্ফোরণসহ বিভিন্ন সময়ে নাশকতা সৃষ্টিকারী জঙ্গি সংগঠন সমূহের শীর্ষ সারির নেতা থেকে শুরু করে বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীদেরকেও গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা সম্ভবপর হয়েছে। আটককৃতদের মধ্যে কারো কারো মৃত্যুদন্ড, যাবজ্জীবন কারাদন্ড হয়েছে, কেউ কেউ বিভিন্ন মেয়াদে কারাভোগ করেছে এবং বেশ কিছু মামলা এখানো বিচারাধীন। তবে, যে সকল জঙ্গি এখনো আত্মগোপন করে আছে তাদের তৎপরতা একেবারে বন্ধ হয়ে যায়নি। র‌্যাবের কঠোর গোয়েন্দা নজরদারী ও অভিযানের ফলে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন গুলোর নেতাকর্মীরা পূনরায় সংগঠিত হওয়ার চেষ্টা চালিয়ে বারবার ব্যর্থ হয়েছে এবং বিভিন্ন আইন প্রয়োগকারী সংস্থার হাতে আটক হয়েছে।

২।    সাম্প্রতিক জঙ্গি বিরোধী অভিযানের ধারাবাহিকতায় সন্দেহভাজন বেশ কিছু উগ্রপন্থী ও জঙ্গিবাদে উদ্বুদ্ধ সদস্য র‌্যাবের গোয়েন্দা নজরদারীর মধ্যে ছিল। এরই প্রেক্ষিতে গত ২১/০৯/২০১৭ তারিখে খিলগাঁও থানাধীন দক্ষিণ বনশ্রী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে  জেএমবি “সারোয়ার তামিম গ্রুপ” এর ‘ব্রিগেড আদ্-দার-ই-কুতনী’র কমান্ডার ইমাম মেহেদী হাসান @ আবু জিব্রিলকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় র‌্যাব-৩। জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত ইমাম মেহেদী জঙ্গিবাদে সংশ্লিষ্ট বেশ কয়েকজন সদস্য সম্পর্কে তথ্য প্রদান করেছিল।

৩।    এরই ধারাবাহিকতায় ইমাম মেহেদী হাসান @ আবু জিব্রিল এর স্বীকারোক্তি অনুযায়ী গত ১৫ অক্টোবর ২০১৭ তারিখ ১০৩০ ঘটিকায় রাজধানীর তেজগাঁও এলাকা হতে তার অন্যতম সহযোগী এবং সক্রিয় জঙ্গি সদস্য রিয়াসাত এলাহী চৌধুরী @ আবু হুরায়রা (২৮), পিতা-মৃত মাহবুব উল আলম চৌধুরী, বাসা নং-৫৫, হুন্ডার গলি, তেজগাঁও, ডিএমপি, ঢাকাকে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রিয়াসাত জানায় যে, ২০১৫ সালে উগ্র মতবাদে বিশ্বাসী যুবক রাশেদের মাধ্যমে তার ‘ব্রিগেড আদ্-দার-ই-কুতনী’র কমান্ডার ইমাম মেহেদী হাসান @ আবু জিব্রিল এর সাথে পরিচয় হয়। ইমাম মেহেদী হাসান এর ঘনিষ্ঠ সংস্পর্শে সে জঙ্গিবাদী কার্যক্রমে জড়িয়ে পড়ে। ইমাম মেহেদী তার সাংগঠনিক নাম আবু হুরায়রা প্রদান করে। পরবর্তীতে ইমাম মেহেদী হাসানের নেতৃত্বে ‘ব্রিগেড আদ্-দার-ই-কুতনী’র বেশ কয়েকজন সদস্য রিয়াসাতের ফার্মগেটের বাসায় সাংগঠনিক কার্যক্রম জোরদার করার জন্য গোপন বৈঠকে মিলিত হয়। একপর্যায়ে রিয়াসাত তার পরিচিত অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী উগ্র মতাদর্শে বিশ্বাসী যুবক আবু আ’তার @ নওরোজ রাইয়াত আমিনের সাথে ইমাম মেহেদী হাসানের পরিচয় করিয়ে দেয়। আবু আ’তার বাংলাদেশে থাকাকালীন সময় বেশ কয়েকবার রিয়াসাতের মাধ্যমে রাজধানীর চকবাজারস্থ শ্বশুর বাড়ীর ছাদে ইমাম মেহেদী হাসান সহ অনেকের সাথে গোপন বৈঠকে মিলিত হয়।

৪।    আসামীকে আদালতে উপস্থাপন করা হলে বিজ্ঞ আদালত ০৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে।

৫।    উপরোক্ত বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

র‌্যাব কর্তৃক প্রদত্ত পরামর্শ

***জমি জমা বা টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোন অভিযোগ র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***ব্যক্তিগত বা পারিবারিক কোন সমস্যা র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***কোন অভিযোগ করার পূর্বে আপনার এলাকার জন্য দায়িত্বপূর্ন র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্প সম্পর্কে জানুন ও যথাযথ র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্পে অভিযোগ করুন ।
***আপনার এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে র‌্যাব কে তথ্য প্রদান করে র‌্যাবকে সহযোগীতা করুন । আপনার পরিচয় সম্প‍ুর্ন্ন গোপন রাখা হবে । ***বেশী করে গাছ লাগান অক্সিজেনের অভাব তাড়ান
***ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের আগুন নিয়ে খেলতে দিবেন না ।
***যাত্রা পথে অপরিচিত লোকের দেওয়া বিছু খাবেন না । ভ্রমণকালে সহযোগী বা অন্য কাহারো নিকট হইতে পান, বিড়ি, সিগারেট, চা বা অন্য কোন পানীয় খাওয়া/গ্রহন করা হইতে বিরত ‍থাকা আবশ্যক ।

সাম্প্রতিক ভিডিও