Home » News Room » র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানা এলাকা হতে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ০৬ (ছয়) ডাকাতকে গ্রেফতার ॥ ডাকাতির সরঞ্জামাদি ও দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার।

র‌্যাবের অভিযানে রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানা এলাকা হতে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ০৬ (ছয়) ডাকাতকে গ্রেফতার ॥ ডাকাতির সরঞ্জামাদি ও দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার।

Press - 3 (RAB-2) Pic
১। অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার এবং আইনের আওতায় আনা এলিট ফোর্স র‌্যাবের অন্যতম প্রধান গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব ও চলমান আভিযানিক কর্মকান্ড। প্রতিষ্ঠালগ্ন হতে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার এবং সন্ত্রাস প্রতিরোধে এলিট ফোর্স র‌্যাবের বিশেষ অভিযানসমূহ দেশব্যাপী ব্যাপকভাবে প্রশংসিত। এলিট ফোর্স র‌্যাব প্রতিষ্ঠার পর হতে অদ্যবধি অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে আপোষহীন এবং নিরলস গ্রেফতার অভিযান চলমান রেখেছে। দেশের বর্তমান প্রেক্ষাপটে জনগণের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ এবং আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি উন্নয়নের লক্ষ্যে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার এবং আইনের আওতায় আনার জন্য র‌্যাবের ব্যাপক গোয়েন্দা নজরদারী অব্যাহত আছে।

২। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৫ মে ২০১৯ খ্রিঃ তারিখ ২০.৩০ ঘটিকায় র‌্যাব-২ এর আভিযানিক দল ঢাকা মহানগরীর শেরেবাংলা নগর থানাধীন উড়োজাহাজ মোড় টু মিরপুর গামী রাস্তার বাম পার্শ্বে বিআইসিসি ভবন সংলগ্ন চন্দ্রিমা উদ্যান এর ভিতরে বটগাছের নিচে দেশীয় অস্ত্র-সরঞ্জামাদিসহ একদল ডাকাত ডাকাতির উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব সদস্যরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে দৌঁড়ে পালানোর সময় সংঘবদ্ধ ডাকাত দলের ০৬ (ছয়) জন সক্রিয় সদস্য ১। মোঃ সোহেল (৪০), পিতা-মৃত মহিউদ্দীন, সাং-ফরদাবাদ, থানা-বাঞ্চারামপুর, জেলা-বি-বাড়ীয়া, ২। মোঃ সাগর (৩২), পিতা-মোঃ সুলতান, সাং-উলাইচর, থানা-সিঙ্গাইর, জেলা-মানিকগঞ্জ, ৩। মোঃ রাসেল (২৪), পিতা-মোঃ শাহজাহান, সাং-বড়পাতা, থানা-বোরহানউদ্দীন, জেলা-ভোলা, ৪। মোঃ আনোয়ার হোসেন (৩০), পিতা-মোঃ আলতাফ হোসেন, সাং-মাতব্বর চর, থানা-শিবচর, জেলা-মাদারীপুর, ৫। মোঃ ফারুক (২০), পিতা-মৃত আব্দুল হামিদ, সাং-গুজাদিয়া পালেবান্দা, থানা-করিমগঞ্জ, জেলা-কিশোরগঞ্জ, ৬। মোঃ সবুজ (২২), পিতা-মৃত জয়নাল শিকদার, সাং-সৌলা মুলাদী, থানা-হিজলা, জেলা-বরিশাল‘কে ১। চাপাতি ০২ (দুই) টি, ২। চাকু ০৪ (চার) টি, ৩। স্লাই রেঞ্জ ০১ (এক) টি এবং ৪। স্ক্রু ড্রাইভার ০১ (এক) টি সহ গ্রেফতার করা হয়। আটককৃতরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, তারা একটি সংঘবদ্ধ ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য। রাতের বেলায় তারা এরকম দুই বা ততোধিক দল একত্র হয়ে নির্দিষ্ট ফ্ল্যাটে বা ফাঁকা বাড়ীতে গ্রিল কেটে ও তালা ভেঙ্গে প্রবেশ করে ডাকাতি করে থাকে। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানায়, তারা দীর্ঘদিন যাবৎ ঢাকা শহরের সুবিধাজনক স্থানে বিভিন্ন লোকজনদের চাপাতি, ছোরা, চাকু ও অন্যান্য দেশীয় অস্ত্র দিয়ে ভয় দেখিয়ে ছিনতাই ও ডাকাতি করে আসছিল। আটককৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে আরো অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে, যা যাচাই বাছাই করে ভবিষ্যতেও র‌্যাব-২ কর্তৃক এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

৩। উপরোক্ত বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে ।

সাম্প্রতিক ভিডিও




র‌্যাব কর্তৃক প্রদত্ত পরামর্শ

***জমি জমা বা টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোন অভিযোগ র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***ব্যক্তিগত বা পারিবারিক কোন সমস্যা র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***কোন অভিযোগ করার পূর্বে আপনার এলাকার জন্য দায়িত্বপূর্ন র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্প সম্পর্কে জানুন ও যথাযথ র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্পে অভিযোগ করুন ।
***আপনার এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে র‌্যাব কে তথ্য প্রদান করে র‌্যাবকে সহযোগীতা করুন । আপনার পরিচয় সম্প‍ুর্ন্ন গোপন রাখা হবে । ***বেশী করে গাছ লাগান অক্সিজেনের অভাব তাড়ান
***ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের আগুন নিয়ে খেলতে দিবেন না ।
***যাত্রা পথে অপরিচিত লোকের দেওয়া কিছু খাবেন না । ভ্রমণকালে সহযোগী বা অন্য কাহারো নিকট হইতে পান, বিড়ি, সিগারেট, চা বা অন্য কোন পানীয় খাওয়া/গ্রহন করা হইতে বিরত ‍থাকা আবশ্যক ।