Home » News Room » র‌্যাবের অভিযানে নীলফামারী জেলার ডোমার থানাধীন বিভিন্ন এলাকা হতে সংঘবদ্ধ প্রতারক, ছিনতাইকারী ও মাদক ব্যবসায়ী চক্র অস্ত্র ও মাদকদ্রব্যসহ গ্রেফতার

র‌্যাবের অভিযানে নীলফামারী জেলার ডোমার থানাধীন বিভিন্ন এলাকা হতে সংঘবদ্ধ প্রতারক, ছিনতাইকারী ও মাদক ব্যবসায়ী চক্র অস্ত্র ও মাদকদ্রব্যসহ গ্রেফতার

১।    র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধ এর উৎস উদ্ঘাটন, জঙ্গিবাদ দমন, অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইন শৃংখলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। র‌্যাব শুরু থেকে যে কোন ধরনের অপরাধী, অপহরণ, অপহরণ চক্রকে সনাক্ত, অপহৃত ভিকটিম উদ্ধারসহ দেশের শীর্ষ সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করতে র‌্যাব সার্বক্ষণিকভাবে অভিযান পরিচালনা করে থাকে।
২।    এরই ধারাবাহিকতায় গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-১৩, রংপুর এর একটি চৌকস আভিযানিক দল গত ০৫ মে ২০১৭ ইং তারিখ অপরাহ্নে নীলফামারী জেলার ডোমার উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে সংঘবদ্ধ প্রতারক, ছিনতাইকারী ও মাদক ব্যবসায়ী (১) অনুপ কুমার সাহা (৩৫), পিতাঃ মৃত অনিল চন্দ্র সাহা, সাং-ছোট রাউতা সাহাপাড়া, থানাঃ ডোমার, জেলাঃ নীলফামারী, (২) মোঃ আবুল কালাম আজাদ (৪৪), পিতাঃ মৃত সিরাজুল ইসলাম, সাং-বসতপাড়া পূর্ব চিকনমাটি, থানাঃ ডোমার, জেলাঃ নীলফামারী (৩) মোঃ সাইফুল ইসলাম (১৮), পিতাঃ মোঃ সোহরাব হোসেন, সাং-দক্ষিণ আমবাড়ী, পোঃ গোমনাতি, থানাঃ ডোমার, জেলাঃ নীলফামারীদেরকে অস্ত্র, মাদকদ্রব্য, ছিনতাই ও প্রতারণা করে আদায়কৃত উদ্ধারকৃত অর্থ এবং বিভিন্ন দ্রব্য সামগ্রীসহ গ্রেফতার করে। আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদের তথ্য মোতাবেক তাদের হেফাজত হতে ০৩ রাউন্ড গুলিসহ ০১টি  বিদেশী পিস্তল, ০২ রাউন্ড গুলিসহ ০২টি দেশীয় ওয়ান স্যুটার গান, ০২টি দেশীয় ধারালো অস্ত্র, ৩৫ বোতল ফেন্সিডিল, অপরাধের কাজে ব্যবহৃত ১১টি মোবাইল ফোন, ১৯টি সীম কার্ড, ০১টি সিপিইউ ও ০২টি কালার মনিটর উদ্ধার করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আরও জানা যায় যে, এই সংঘবদ্ধ চক্রটি ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রতারণা করে বিকাশের মাধ্যমে লোকজনের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নিত। এমনকি তারা প্রতারণায় ব্যর্থ হলে ভয় ভীতি দেখিয়ে এবং বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে লোকজনকে জিম্মি করে তাদের কাছ থেকে অর্থ আদায় করত। এছাড়াও এই চক্রটি অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ছিনতাই করত। এই চক্রটি মাদক ব্যবসার সাথেও জড়িত রয়েছে এবং তারা নিজেরাও মাদক সেবন করত। তাদের নামে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়।

৩।    উপরোক্ত বিষয়ে আইনানুগ ব্যাবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

র‌্যাব কর্তৃক প্রদত্ত পরামর্শ

***জমি জমা বা টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোন অভিযোগ র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***ব্যক্তিগত বা পারিবারিক কোন সমস্যা র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***কোন অভিযোগ করার পূর্বে আপনার এলাকার জন্য দায়িত্বপূর্ন র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্প সম্পর্কে জানুন ও যথাযথ র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্পে অভিযোগ করুন ।
***আপনার এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে র‌্যাব কে তথ্য প্রদান করে র‌্যাবকে সহযোগীতা করুন । আপনার পরিচয় সম্প‍ুর্ন্ন গোপন রাখা হবে । ***বেশী করে গাছ লাগান অক্সিজেনের অভাব তাড়ান
***ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের আগুন নিয়ে খেলতে দিবেন না ।
***যাত্রা পথে অপরিচিত লোকের দেওয়া বিছু খাবেন না । ভ্রমণকালে সহযোগী বা অন্য কাহারো নিকট হইতে পান, বিড়ি, সিগারেট, চা বা অন্য কোন পানীয় খাওয়া/গ্রহন করা হইতে বিরত ‍থাকা আবশ্যক ।

সাম্প্রতিক ভিডিও