Home » News Room » র‌্যাবের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ এবং রাজধানীর রামপুরা এলাকা হতে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন আনসার আল ইসলাম (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) এর ০২ জন সক্রিয় সদস্য গ্রেফতার। দেশীয় অস্ত্র, জঙ্গীবাদী বই এবং লিফলেট উদ্ধার।

র‌্যাবের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ এবং রাজধানীর রামপুরা এলাকা হতে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন আনসার আল ইসলাম (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) এর ০২ জন সক্রিয় সদস্য গ্রেফতার। দেশীয় অস্ত্র, জঙ্গীবাদী বই এবং লিফলেট উদ্ধার।

১। এলিট ফোর্স র‌্যাব সৃষ্টির সূচনালগ্ন থেকেই জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ এর বিরুদ্ধে আপোষহীন অবস্থানে থেকে নিরলস ভাবে কাজ করে আসছে। র‌্যাবের কর্ম তৎপরতার কারণেই সারাদেশে একযোগে বোমা বিষ্ফোরণসহ বিভিন্ন সময়ে নাশকতা সৃষ্টিকারী জঙ্গি সংগঠন সমূহের শীর্ষ সারির নেতা থেকে শুরু করে বিভিন্ন স্তরের নেতা কর্মীদেরকেও গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা সম্ভবপর হয়েছে। আটককৃতদের মধ্যে কারো কারো মৃত্যুদন্ড, যাবজ্জীবন কারাদন্ড হয়েছে, কেউ কেউ বিভিন্ন মেয়াদে কারাভোগ করেছে এবং বেশকিছু মামলা এখনো বিচারাধীন। তবে, যে সকল জঙ্গি এখনো আত্মগোপন করে আছে তাদের তৎপরতা একেবারে বন্ধ হয়ে যায়নি। র‌্যাবের কঠোর গোয়েন্দা নজরদারী ও অভিযানের ফলে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠনগুলোর নেতা কর্মীরা পূনরায় সংগঠিত হওয়ার চেষ্টা চালিয়ে বার বার ব্যর্থ হয়েছে এবং বিভিন্ন আইন প্রয়োগকারী সংস্থার হাতে আটক হয়েছে।

২। গত এপ্রিল মাস হতে এ পর্যন্ত র‌্যাব-১১ কর্তৃক বেশ কয়েকটি সফল জঙ্গী বিরোধী অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এ সকল অভিযানে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠনের শীর্ষ পর্যায়ের নেতাসহ ৫৩ জন বিভিন্ন পর্যায়ের সদস্য ও পলাতক আসামীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হয়েছে। বিভিন্ন অভিযানে গ্রেফতারকৃত এ সকল জঙ্গিদেরকে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করে তাদের নেটওয়ার্ক এবং কার্যক্রমের অনেক তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। প্রাপ্ত সে সকল তথ্যাদি যাচাই-বাছাই ও বিশ্লেষণের পর জঙ্গি কার্যক্রমে সম্পৃক্ত যে সকল সদস্য এখনও গ্রেফতার হয়নি তাদেরকে আইনের আওতায় আনার জন্য অব্যাহতভাবে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে।

৩। র‌্যাবের গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-১১, নারায়ণগঞ্জ এর একটি আভিযানিক দল গত ০৭ নভে¤¦র ২০১৭ তারিখ ২৩০০ ঘটিকা হতে ০৮ নভে¤¦র ২০১৭ তারিখ ০৩৪৫ ঘটিকা পর্যন্ত সময়ে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন সাইনবোর্ড এবং রাজধানীর রামপুরা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন আনসার আল ইসলাম (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) এর ০২ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ও গোয়েন্দা নজরদারীর মাধ্যমে নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকায় নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন আনসার আল ইসলাম (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) এর কিছু সদস্য গোপন বৈঠকের জন্য একত্রিত হওয়ার সংবাদ প্রাপ্তির প্রেক্ষিতে উক্ত এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় সৈয়দ রায়হান কবির@রায়হান@ বাবু@নাঈম@সাইকো মার্শাল (২৮) নামে একজনকে দেশীয় অস্ত্র, জঙ্গীবাদী বই ও লিফলেটসহ গ্রেফতার করা হয় এবং তার দেয়া তথ্য মতে রাজধানীর রামপুরা এলাকা হতে মোঃ ফয়সাল রহমান@মোয়াজ@আবু দোজানা (২৯)কে লিফলেটসহ গ্রেফতার করা হয়।

৪। সৈয়দ রায়হান কবির@রায়হান@বাবু@নাঈম@সাইকো মার্শাল (২৮), ২০০৪ সালে রাজধানীর বনশ্রী এলাকার একটি স্কুল থেকে নবম শ্রেণী পর্যন্ত লেখাপড়া করে এবং ২০০৯ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন ধরনের দোকানে কাজ করে। সে ২০১২ সালে জনৈক আব্দুল্লাহর মাধ্যমে জসিম উদ্দিন রাহমানির মসজিদে যাতায়াতের মধ্য দিয়ে উগ্রবাদের দিকে আকৃষ্ট হয় এবং ২০১৩ সালে জনৈক রাহাত এর মাধ্যমে নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন আনসার আল ইসলাম (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) এ যোগদান করে এবং সামরিক প্রশিক্ষণ গ্রহন করে জঙ্গী কার্যক্রম শুরু করে। সে ২০১৩ থেকে নারায়ণগঞ্জ ও ঢাকার রামপুরা ও বনশ্রী এলাকায় আনসার আল ইসলামের সমন্বয়ক হিসেবে কাজ করে। এছাড়াও সে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন এলাকা হতে সদস্য সংগ্রহ ও অর্থ সংগ্রহের কাজ করে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করে।

৫। মোঃ ফয়সাল রহমান @ মোয়াজ@আবু দোজানা (২৯), ২০১১ সালে ঢাকার একটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় হতে বিবিএ পাশ করে এবং ঢাকার একটি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে কাজ করে আসছিল। সে জনৈক মুসার হাত ধরে ২০০৫ সালে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন হিযবুত তাহ্রীর তে যোগদান করে একজন সক্রিয় কর্মী হিসেবে ২০১২ সাল পর্যন্ত কাজ করে। পরবর্তীতে গ্রেফতারকৃত সৈয়দ রায়হান কবির@ রায়হান@ বাবু@নাঈম@সাইকো মার্শাল এর মাধ্যমে ২০১৩ সালে আনসার আল ইসলাম (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) এ যোগদান করে দাওয়াতী ও অর্থ সংগ্রহের কাজ করে আসছিল। সে নারায়ণগঞ্জ ও ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় দাওয়াতী কাজের মাধ্যমে সদস্য সংগ্রহ ও অর্থ সংগ্রহের কাজ করত বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবদে স্বীকার করে।

৬। গ্রেফতারকৃত আসামীদ্বয়ের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন।

র‌্যাব কর্তৃক প্রদত্ত পরামর্শ

***জমি জমা বা টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোন অভিযোগ র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***ব্যক্তিগত বা পারিবারিক কোন সমস্যা র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***কোন অভিযোগ করার পূর্বে আপনার এলাকার জন্য দায়িত্বপূর্ন র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্প সম্পর্কে জানুন ও যথাযথ র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্পে অভিযোগ করুন ।
***আপনার এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে র‌্যাব কে তথ্য প্রদান করে র‌্যাবকে সহযোগীতা করুন । আপনার পরিচয় সম্প‍ুর্ন্ন গোপন রাখা হবে । ***বেশী করে গাছ লাগান অক্সিজেনের অভাব তাড়ান
***ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের আগুন নিয়ে খেলতে দিবেন না ।
***যাত্রা পথে অপরিচিত লোকের দেওয়া বিছু খাবেন না । ভ্রমণকালে সহযোগী বা অন্য কাহারো নিকট হইতে পান, বিড়ি, সিগারেট, চা বা অন্য কোন পানীয় খাওয়া/গ্রহন করা হইতে বিরত ‍থাকা আবশ্যক ।

সাম্প্রতিক ভিডিও