Home » News Room » র‌্যাবের অভিযানে টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতি থানাধীন এলেঙ্গা এলাকা হতে জঙ্গীদের কাছে অস্ত্র সরবরহকারী কুখ্যাত সন্ত্রাসী মোঃ বোরহান উদ্দিন @ রাজিব ০১টি বিদেশী পিস্তুল ও ০৩ রাউন্ড গুলিসহ গ্রেফতার ।

র‌্যাবের অভিযানে টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতি থানাধীন এলেঙ্গা এলাকা হতে জঙ্গীদের কাছে অস্ত্র সরবরহকারী কুখ্যাত সন্ত্রাসী মোঃ বোরহান উদ্দিন @ রাজিব ০১টি বিদেশী পিস্তুল ও ০৩ রাউন্ড গুলিসহ গ্রেফতার ।

১।    র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সবসময়ই অবৈধ অস্ত্র ব্যবসায়ী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী, খুনি, মাদক ও মাদক ব্যবসায়ী, বিভিন্ন সদস্যদের গ্রেফতার পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের ক্ষেত্রে অত্যন্ত অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। র‌্যাবের সৃষ্টিকাল থেকে চাঁদাবাজ, সন্ত্রাস, খুনি, বিপুল পরিমাণ অবৈধ অস্ত্র গোলাবারুদ উদ্ধার, ছিনতাইকারী, চোরাকারবারী, অপহরণ ও প্রতারকদের গ্রেফতার করে সাধারণ জনগণের মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে সংগঠিত চাঞ্চল্যকর অপরাধে জড়িত অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে র‌্যাব জনগনের সুনাম অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

২।   এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-১২ এর একটি আভিযানিক দল গত ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, কতিপয় সন্ত্রাসী এলেঙ্গা কালিহাতী এলাকায় ছিনতাই করার প্রস্তুতি গ্রহণ করছে। উক্ত সংবাদের বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করে সত্যতা যাচাই ও পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ প্রাপ্ত হয়ে টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতি থানাধীন এলেঙ্গা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে মোঃ বোরহান উদ্দিন @ রাজিব (২৮), পিতা-মোঃ নিজাম উদ্দিন, সাং-চিনা মোড়া মধ্যপাড়া, থানা-কালিহাতি, জেলা-টাঙ্গাইলকে ০১টি বিদেশী পিস্তল ও ০৩ রাউন্ড গুলিসহ গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। সাক্ষীদের সম্মুখে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত রাজিব জানায় যে, সে দীর্ঘদিন ধরে টাঙ্গাইল ও গাজীপুর জেলাসহ আশপাশ এলাকার বিভিন্ন প্রকার অপরাধমূলক কর্মকান্ড করে আসছে এবং তার নামে টঙ্গী, জয়দেবপুর ও কালিহাতি থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। সে এলাকায় অবৈধভাবে আধিপত্য বিস্তার, সন্ত্রাসী কর্মকান্ড পরিচালনার মাধ্যমে চাঁদাবাজি, ছিনতাই ও লোকজনকে ভয় ভীতি, হুমকি সহ বিভিন্ন অপরাধমুলক কর্মকান্ডে আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করে থাকে। টাঙ্গাইল ও গাজীপুর এলাকার বিভিন্ন সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর সাথে তার যোগাযোগ রয়েছে। এছাড়াও সে নিয়মিত মাদক সেবন করে এবং মাদক দ্রব্যের ব্যবসা করে থাকে। র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে সে আরও জানায় যে, বিভিন্ন সন্ত্রাসী গোষ্ঠী ও অপরাধীদের কাছে  সে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র ও বিদেশী আগ্নেয়াস্ত্র সরবরাহ করে থাকে । ধৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায় যে, ধৃত রাজিবের নামে জয়দেবপুর থানার মামলা নং ৮২,  তারিখ: জুন/২০১১, ধারা: ৩৮১/৪১১ দন্ডবিধি, টঙ্গি থানার মামলা নং ২৪,  তারিখ: জানুয়ারি/২০১২, ধারা: ৩৯৯/৪০২ দন্ডবিধি, টাঙ্গাইল কালিহাতি থানার মামলা নং ১৭,  তারিখ: ডিসেম্বর/২০১৬, ধারা: ৩৯৯/৪০২ দন্ডবিধি, টাঙ্গাইল সদর থানার মামলা নং ০৮, তারিখ: ০৭/৮/২০১৭, ধারা: ১৯(১) এর ৯(ক) ১৯৯০ সালের মাদক দ্রব্য আইন, কালিহাতি থানার মামলা নং ১৩, তারিখ: ১১/০৩/২০১৭, ধারা: ১৯(১) এর ৯(খ)/২৫ ১৯৯০ সালের মাদক দ্রব্য আইন, কালিহাতি থানার মামলা নং ১৩, তারিখ: ০৭/০৬/২০১৭, ধারা: ১৯(১) এর ৯(খ)/২৫ ১৯৯০ সালের মাদক দ্রব্য আইন, কালিহাতি থানার মামলা নং ৩২, তারিখ: ২৫/৭/২০১৭, ধারা: ১৯(১) এর ৯(খ)/২৫ ১৯৯০ সালের মাদক দ্রব্য আইনসহ মোট ০৭টি মামলা বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। প্রাথমিক অনুসন্ধানে আরও জানা যায় যে, গত ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখে টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতি থানা এলাকায় নাশকতামূলক কর্মকান্ডের পরিকল্পনা করার সময় র‌্যাবের অভিযানে ধৃত নিষিদ্ধ ঘোষিত জেএমবি  দলের সক্রিয় সদস্য (১) সৈয়দ নুরুল হুদা মাসুম (৩০) ও (২) মাজহারুল ইসলাম খোকন (২৭), উভয় পিতাঃ মৃত সৈয়দ আবুল হোসেন চিশতী, সাং- মসিন্দা, থানাঃ কালিহাতি, জেলাঃ টাঙ্গাইলদ্বয় এর নিকট হতে উদ্ধারকৃত দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র অর্থের বিনিময়ে ধৃত রাজিব সরবরাহ করেছিল। ধৃত রাজিব র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে উক্ত ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে। রাজিব আরও জানায় যে, সৈয়দ নুরুল হুদা মাসুম বিদেশী পিস্তলসহ অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্র ও বিস্ফোরক দ্রব্য ক্রয় করার ব্যবস্থা করে দেওয়ার জন্য তাকে অনুরোধ করেছিল। কিন্তু র‌্যাবের প্রোএ্যাকটিভ অভিযানে তাদের সকল পরিকল্পনা ভেস্তে যায়।

র‌্যাব কর্তৃক প্রদত্ত পরামর্শ

***জমি জমা বা টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোন অভিযোগ র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***ব্যক্তিগত বা পারিবারিক কোন সমস্যা র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***কোন অভিযোগ করার পূর্বে আপনার এলাকার জন্য দায়িত্বপূর্ন র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্প সম্পর্কে জানুন ও যথাযথ র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্পে অভিযোগ করুন ।
***আপনার এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে র‌্যাব কে তথ্য প্রদান করে র‌্যাবকে সহযোগীতা করুন । আপনার পরিচয় সম্প‍ুর্ন্ন গোপন রাখা হবে । ***বেশী করে গাছ লাগান অক্সিজেনের অভাব তাড়ান
***ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের আগুন নিয়ে খেলতে দিবেন না ।
***যাত্রা পথে অপরিচিত লোকের দেওয়া বিছু খাবেন না । ভ্রমণকালে সহযোগী বা অন্য কাহারো নিকট হইতে পান, বিড়ি, সিগারেট, চা বা অন্য কোন পানীয় খাওয়া/গ্রহন করা হইতে বিরত ‍থাকা আবশ্যক ।

সাম্প্রতিক ভিডিও