Home » News Room » র‌্যাবের অভিযানে চট্টগ্রাম মহনগরীর কোতয়ালী থানাধীন মেরীনার্স এলাকা হতে ৩১,৫০০ পিস ইয়াবা এবং ০১ টি মাইক্রোবাসসহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার।

র‌্যাবের অভিযানে চট্টগ্রাম মহনগরীর কোতয়ালী থানাধীন মেরীনার্স এলাকা হতে ৩১,৫০০ পিস ইয়াবা এবং ০১ টি মাইক্রোবাসসহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার।

RAB-7 (1)
১। বর্তমান প্রেক্ষাপটে তরুণ সমাজ ধ্বংসের সবচেয়ে আলোচিত এবং অন্যতম মাধ্যম হিসেবে মাদকদ্রব্যকে ব্যবহার করা হচ্ছে। এতদ্সংক্রান্তে এক শ্রেণীর অসাধু মাদক ব্যবসায়ী নিজস্ব স্বার্থ সিদ্ধির উদ্দেশ্যে অবৈধভাবে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ প্রত্যন্ত অঞ্চলের যুব সমাজের হাতে মাদকদব্য বা নেশাজাতীয় দ্রব্য পৌঁছে দেওয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। সমাজে মাদকের ভয়াল থাবার বিস্তার বোধকল্পে মাদক বিরোধী অভিযানে র‌্যাব সর্বদা সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছে।

২। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী কক্সবাজার হতে একটি মাইক্রোবাস যোগে বিপুল পরিমাণ মাদকদ্রব্য নিয়ে চট্টগ্রামের দিকে আসছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে গত ০৮ আগস্ট ২০১৯ তারিখ ১৯৫৫ ঘটিকার সময় র‌্যাব-৭ এর একটি আভিযানিক দল চট্টগ্রাম মহনগরীর কোতয়ালী থানাধীন মেরিনার্স রোডস্থ ০১ নং পুরাতন ফিশারী ঘাটের রাস্তার মাথায় পাকা রাস্তার উপর একটি বিশেষ চেকপোস্ট স্থাপন করে গাড়ি তল্লাশী শুরু করে। এ সময় কক্সবাজার হতে আসা একটি মাইক্রোবাসের এর গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হলে র‌্যাব সদস্যরা মাইক্রোবাসটিকে থামানোর সংকেত দিলে মাদক ব্যবসায়ীরা মাইক্রোবাসটি চেকপোষ্টের সামনে থামিয়ে দ্রুত গতিতে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে মাদক ব্যবসায়ী ১। মোঃ আনোয়ার ইসলাম (২১), পিতা- মোঃ আব্দুল হক, গ্রাম- মুক্তারকুল, কক্সবাজার সদর, জেলা- কক্সবাজার এবং ২। মোঃ ওমর রায়হান আরাফাত (২০), পিতা- মৃত সেলিম, গ্রাম- হাজী আঃ জলিলের বাড়ী, ওমর আলী মাতব্বর রোড, থানা- চান্দগাঁও, জেলা- চট্টগ্রাম মহানগরদের’কে গ্রেফতার করা হয়। পরবর্তীতে উপস্থিতি সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে তাদের দেখানো ও সনাক্তমতে গাড়ির ভিতরে সুকৌশলে লুকানো অবস্থায় ৩১,৫০০ পিস ইয়াবা উদ্ধারসহ উক্ত মাইক্রোবাসটি (ঢাকা মেট্রো-চ-১১-৬৪০১) জব্দ করা হয়। এ সময় ০১ জন মোঃ আরিফ, ঠিকানা- অজ্ঞাত পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। গ্রেফতারকৃতদেরকে আরো জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা দীর্ঘদিন যাবত কক্সবাজার হতে মাদকদ্রব্য সংগ্রহ করে পরবর্তীতে উক্ত মাদকদ্রব্য ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পাচার করে আসছে।

৩। উপরোক্ত বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

সাম্প্রতিক ভিডিও




র‌্যাব কর্তৃক প্রদত্ত পরামর্শ

***জমি জমা বা টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোন অভিযোগ র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***ব্যক্তিগত বা পারিবারিক কোন সমস্যা র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***কোন অভিযোগ করার পূর্বে আপনার এলাকার জন্য দায়িত্বপূর্ন র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্প সম্পর্কে জানুন ও যথাযথ র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্পে অভিযোগ করুন ।
***আপনার এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে র‌্যাব কে তথ্য প্রদান করে র‌্যাবকে সহযোগীতা করুন । আপনার পরিচয় সম্প‍ুর্ন্ন গোপন রাখা হবে । ***বেশী করে গাছ লাগান অক্সিজেনের অভাব তাড়ান
***ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের আগুন নিয়ে খেলতে দিবেন না ।
***যাত্রা পথে অপরিচিত লোকের দেওয়া কিছু খাবেন না । ভ্রমণকালে সহযোগী বা অন্য কাহারো নিকট হইতে পান, বিড়ি, সিগারেট, চা বা অন্য কোন পানীয় খাওয়া/গ্রহন করা হইতে বিরত ‍থাকা আবশ্যক ।