Home » News Room » র‌্যাবের অভিযানে চট্টগ্রাম মহানগরীর খুলশী, বায়েজীদ এবং চট্টগ্রাম জেলার ফটিকছড়ি থানাধীন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে বিপুল পরিমান ভিওআইপি সামগ্রীসহ ০৩ জন গ্রেফতার।

র‌্যাবের অভিযানে চট্টগ্রাম মহানগরীর খুলশী, বায়েজীদ এবং চট্টগ্রাম জেলার ফটিকছড়ি থানাধীন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে বিপুল পরিমান ভিওআইপি সামগ্রীসহ ০৩ জন গ্রেফতার।

১।    গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের “ভিশন-২০২১” লক্ষমাত্রা অর্জন ও ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে সহায়ক শক্তি হিসেবে র‌্যাব বরাবরই অগ্রণী ভূমিকা পালন করে চলেছে। এক শ্রেণীর অসাধু ব্যবসায়ী চক্র অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসার মাধ্যমে দেশের টেলিযোগাযোগ খাতকে ক্ষতিগ্রস্থ করছে এবং ফলশ্রতিতে বাংলাদেশ সরকারও বিপুল পরিমান রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। সাইবার অপরাধ দমন ও অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসা বন্ধ করে সরকারের রাজস্ব আয় বৃদ্ধি কল্পে র‌্যাব সদা তৎপর। সূচনালগ্ন হতেই র‌্যাব এই পর্যন্ত বিপুল পরিমান অবৈধ ভিওআইপি সামগ্রী উদ্ধার পূর্বক ভিওআইপি ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসছে।

২।    এরই ধারাবাহিকতায়, র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, চট্টগ্রাম জেলার ফটিকছড়ি থানাধীন খাগড়াছড়ি রোডস্থ ফটিকছড়ি বাসষ্ট্যান্ডের পশ্চিম পাশে ফটিকছড়ি পৌরসভা, ৮নং ধরুং ওয়ার্ড, ১৫৯নং হোল্ডিং এর দোতলা বিশিষ্ট বিল্ডিং- এ কতিপয় অসাধু ব্যক্তি সরকারী কর ফাঁকি দিয়ে অবৈধভাবে ভিওআইপি’র ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে গত ০৮ জুলাই ২০১৭ ইং তারিখ ০৮০০ ঘটিকা  হতে ১৩০০ ঘটিকা পর্যন্ত চট্টগ্রাম বিটিআরসি এর সহকারী পরিচালক মোঃ কামরল হাসান ভুঁইয়া এর সহায়তায় বর্ণিত স্থানে অভিযান পরিচালনা করে আসামী ১। মোঃ সালাউদ্দিন কাদের (৩৫), পিতা-মৃত হাজী শফিকুল ইসলাম, গ্রাম-হোল্ডিং-১৫৯, ৮নং ধুরং ওয়ার্ড, ফটিকছড়ি পৌরসভা, থানা-ফটিকছড়ি, জেলা চট্টগ্রামকে গ্রেফতার করে। তাৎক্ষনিক আসামীকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে চট্টগ্রাম মহানগরীর খুলশী এবং বায়েজীদ থানাধীন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে আসামী ২। মোঃ ইমন উদ্দিন (২১) পিতা- মৃত আফতাব উদ্দিন, গ্রাম-কাঞ্চননগর, থানা-ফটিকছড়ি, জেলা-চট্টগ্রাম। এ/পি গ্রাম-হোল্ডিং-১৫৯, ৮নং ধুরং ওয়ার্ড, ফটিকছড়ি পৌরসভা, থানা ফটিকছড়ি, জেলা, চট্টগ্রাম, ৩। মোঃ আবু তালেব @ ছোটন (২৫), পিতা- মোঃ আমানুল্লাহ, গ্রাম- পূর্ব ডলই, পোষ্ট- খাটিরহাট, থানা- হাটহাজারী, জেলা- চট্টগ্রামদের’কে গ্রেফতার করে। পরবর্তীতে উপস্থিত স্বাক্ষীদের সম্মুখে ঘটনাস্থল সমূহে তল্লাশী করে বিপুল পরিমান অবৈধ ভিওআইপি সামগ্রী উদ্ধার করে। যার মধ্যে ১০ টি চ্যানেল ব্যাংক/গেটওয়ে-১০টি (০১ ী ২৫৬ পোর্ট ,০১ ী ৩২ পোর্ট, ০১ ী ২৮ পোর্ট, ০১ ী ২০ পোট, ০৬ ী ১৬ পোর্ট), ০২টি ফ্লেক্সিলোড সার্ভার,  ০৬ টি টিপি লিংক রাউটার, ০১টি ডি-লিংক রাউটার, ০২টি কী-বোর্ড, ০১টি মাউস, ০৪টি পেনড্রাইভ, ১২টি ইন্টারনেট মডেম, ০৮টি ল্যাপটপ, ১১টি এয়ার কুলার, ০২টি সুইচ, ০১টি ট্যাব, ০৮টি বিভিন্ন ক্যাবল, ১৩টি বিভিন্ন চার্জার,  ১৩৯টি জিএসএম এ্যান্টিনা, ১২টি মোবাইল সেট, এবং বিভিন্ন কোম্পানির সীমকার্র্ড-৮৮১৬টি (গ্রামীণ- ৪৯টি, রবি-৪১৫, এয়ারটেল- ১৯৮৮টি, টেলিটক- ৬৩৬০টি এবং বাংলালিংক-৪) জব্দ করা হয়। পরবর্তীতে গ্রেফতারকৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, সে দীর্ঘদিন যাবত অবৈধভাবে ভিওআইপি ব্যবসা করে আসছেন। উলে¬খ্য যে, উদ্ধারকৃত ভিওআইপি সামগ্রীর আনুমানিক মূল্য ৬০,০০,০০০/- (ষাট লক্ষ) টাকা।

র‌্যাব কর্তৃক প্রদত্ত পরামর্শ

***জমি জমা বা টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোন অভিযোগ র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***ব্যক্তিগত বা পারিবারিক কোন সমস্যা র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***কোন অভিযোগ করার পূর্বে আপনার এলাকার জন্য দায়িত্বপূর্ন র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্প সম্পর্কে জানুন ও যথাযথ র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্পে অভিযোগ করুন ।
***আপনার এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে র‌্যাব কে তথ্য প্রদান করে র‌্যাবকে সহযোগীতা করুন । আপনার পরিচয় সম্প‍ুর্ন্ন গোপন রাখা হবে । ***বেশী করে গাছ লাগান অক্সিজেনের অভাব তাড়ান
***ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের আগুন নিয়ে খেলতে দিবেন না ।
***যাত্রা পথে অপরিচিত লোকের দেওয়া বিছু খাবেন না । ভ্রমণকালে সহযোগী বা অন্য কাহারো নিকট হইতে পান, বিড়ি, সিগারেট, চা বা অন্য কোন পানীয় খাওয়া/গ্রহন করা হইতে বিরত ‍থাকা আবশ্যক ।

সাম্প্রতিক ভিডিও