Home » News Room » র‌্যাবের অভিযানে গাজীপুর জেলার টঙ্গী থানাধীন আমতলী কেরানীটেক এলাকা হতে ৩০ কেজি গাঁজাসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার।

র‌্যাবের অভিযানে গাজীপুর জেলার টঙ্গী থানাধীন আমতলী কেরানীটেক এলাকা হতে ৩০ কেজি গাঁজাসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার।

১।    বর্তমানে আমাদের দেশের যুব সমাজের অধঃপতনের অন্যতম প্রধান কারণ মাদকাসক্তি। মাদকের টাকা জোগাড়ের জন্য মাদকাসক্ত যুব সমাজ বিভিন্ন ধরনের অনৈতিক সন্ত্রাসবাদ, অস্ত্র, ছিনতাইসহ বিভিন্ন প্রকার অবৈধ কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ছে। র‌্যাব যুব সমাজকে মাদকের ভয়াল থাবা থেকে রক্ষার জন্য প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই দেশব্যাপী বিভিন্ন মাদক ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে আপোষহীন অবস্থানে থেকে নিরলস ভাবে কাজ করে আসছে।

২।    এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-১ এর গোয়েন্দা দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, গাজীপুর জেলার টঙ্গী থানাধীন আমতলী কেরানীটেক, ডাঃ শহীদুল¬াহ রোড এলাকায় একজন মাদক বিক্রেতা মাদক দ্রব্য বিক্রয়ের জন্য অবস্থান করছে । উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে গত ১০ আগস্ট ২০১৭ তারিখ ২০৫০ ঘটিকার সময় র‌্যাব-১, উত্তরা, ঢাকা এর একটি আভিযানিক দল উল্লে¬খিত স্থানে পৌঁছালে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক ব্যবসায়ী পালানোর চেষ্টাকালে আভিযানিক দলটি মাদক ব্যবসায়ী মোঃ হীরা কাজী, পিতাঃ মৃত নায়েব আলী কাজী, সাং-খিলক্ষেত উত্তরপাড়া, থানা- খিলক্ষেত, ডিএমপি, ঢাকা, বর্তমান ঠিকানাঃ আমতলী কেরানীটেক, ডাঃ শহীদুল¬াহ রোড, মোঃ আতা মিয়ার বাড়ীর ভাড়াটিয়া, থানা- টংগী, জেলা- গাজীপুর’কে গ্রেফতার করে। পরবর্তীতে তার দেয়া তথ্য মতে তার বাসার ভেতর উত্তর-পূর্ব কর্ণারে দুটি সাদা রংয়ের প¬াস্টিকের বস্তা ভর্তি ঘি কালারের স্কচটেপ দ¦ারা মোড়ানো অবস্থায় ছোট বড় মোট ২৪ টি বান্ডেলে রক্ষিত ৩০ (ত্রিশ) কেজি গাঁজা উদ্ধার করে।

৩।    গ্রেফতারকৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, সে দীর্ঘদিন যাবৎ গাঁজা ও অন্যান্য মাদক দ্রব্য সংগ্রহ করে রাজধানী সহ গাজীপুরের বিভিন্ন এলাকায় মাদক ব্যবসা করে আসছে। উপস্থিত লোকজন এবং স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা যায় যে, ধৃত আসামী দীর্ঘ দিন যাবৎ টঙ্গী থানাধীন আমতলী কেরানীটেক এলাকায় মাদকদ্রব্য তথা গাঁজা ক্রয়-বিক্রয় করে আসছে।

র‌্যাব কর্তৃক প্রদত্ত পরামর্শ

***জমি জমা বা টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোন অভিযোগ র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***ব্যক্তিগত বা পারিবারিক কোন সমস্যা র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***কোন অভিযোগ করার পূর্বে আপনার এলাকার জন্য দায়িত্বপূর্ন র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্প সম্পর্কে জানুন ও যথাযথ র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্পে অভিযোগ করুন ।
***আপনার এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে র‌্যাব কে তথ্য প্রদান করে র‌্যাবকে সহযোগীতা করুন । আপনার পরিচয় সম্প‍ুর্ন্ন গোপন রাখা হবে । ***বেশী করে গাছ লাগান অক্সিজেনের অভাব তাড়ান
***ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের আগুন নিয়ে খেলতে দিবেন না ।
***যাত্রা পথে অপরিচিত লোকের দেওয়া বিছু খাবেন না । ভ্রমণকালে সহযোগী বা অন্য কাহারো নিকট হইতে পান, বিড়ি, সিগারেট, চা বা অন্য কোন পানীয় খাওয়া/গ্রহন করা হইতে বিরত ‍থাকা আবশ্যক ।

সাম্প্রতিক ভিডিও