Home » News Room » র‌্যাবের অভিযানে আশুলিয়া থানার নয়ারহাট এলাকা হতে গার্মেন্টস কর্মীকে গণধর্ষণকারী ০৩ জন আসামী গ্রেফতার।

র‌্যাবের অভিযানে আশুলিয়া থানার নয়ারহাট এলাকা হতে গার্মেন্টস কর্মীকে গণধর্ষণকারী ০৩ জন আসামী গ্রেফতার।

১।    র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধ এর উৎস উদ্ঘাটন, অপরাধীদের গ্রেফতারসহ আইন শৃংখলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। র‌্যাব শুরু থেকে যে কোন ধরনের অপহরণ ও জিম্মি, নারীকে শারীরিক নির্যাতন ও সামজিক অবক্ষয়মূলক অপরাধ প্রতিরোধ এবং অপহরণচক্রকে সনাক্ত, অপহৃত ভিকটিম উদ্ধারসহ অপহরণকারীদের গ্রেফতারে সার্বক্ষনিকভাবে কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে। বর্তমান সমাজে যৌন নিপীড়ন সামাজিক ব্যাধির মত ছড়িয়ে পড়েছে এবং এর থেকে রেহাই পাচ্ছে না গার্মেন্টস্্ কর্মীরাও। এহেন ঘৃণ্য অপরাধকে নির্মূলের জন্য র‌্যাবের প্রতিটি সদস্য প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়ে নারী ও শিশুদের জন্য একটি নিরাপদ বাসযোগ্য সমাজ তথা দেশ বিনির্মাণে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

২।    এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৪ মে র‌্যাব-৪ সাভার এলাকার তেতুুলঝড়ায় সংগঠিত গার্মেন্টস্ কর্মী ধর্ষণ ও অন্য একটি ডাকাতি মামলার ০৭ বছর কারাদন্ড প্রাপ্ত আসামী মোঃ আলমগীর হোসেন (৪০) কে গাবতলী হতে গ্রেফতার করে এবং সাভার থানায় হস্তান্তর করে। উল্লেখ্য আসামী আলমগীর সাভারে গার্মেন্টস্ কর্মীদের একটি মেসের কেয়ারটেকার ছিল। সেখানে থাকা অবস্থায় সে নিয়মিত ভাবে অসংখ্য গার্মেন্টস্ কর্মীকে খাবারের সাথে ঘুমের ঔষধ খাইয়ে অচেতন করে ধর্ষণ করত। তার গ্রেফতারে এলাকায় স্বস্থির পরিবেশ সৃষ্টি হয় ও র‌্যাবের উপর সাধারণ মানুষের আস্থা আরও বৃদ্ধি পায়।

৩।     এ ঘটনার পরের দিন গত ২৫ মে ২০১৭ তারিখ বিকাল ১৫.৩০ ঘটিকায় গণধর্ষণের শিকার একজন বিত্তহীন বিপর্যস্থ গার্মেন্টস্্ কর্মী আস্থার প্রতীক হিসেবে পরিচিত র‌্যাব-৪ এর নবীনগর সাভার ক্যাম্পে স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে অভিযোগ করেন যে, তিনি কিছুক্ষণ পূর্বে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে নিশ্চিত হয়ে র‌্যাব-৪, নবীনগর সাভার ক্যাম্পের একটি আভিযানিক দল তাৎক্ষণিক ভাবে ঘটনাস্থল ও এর   আশে-পাশে বিরামহীন অভিযান চালিয়ে সন্ধ্যা ১৯.৩০ ঘটিকায় আশুলিয়া থানার নয়ারহাট এলাকা হতে ধর্ষণকারী (১) রিপন মাহমুদ (২৯), পিতা মোঃ ফজল হক, সাং-ধনিয়া, থানা- আশুলিয়া, জেলা-ঢাকা, (২) মোঃ খোকন (৩০), পিতা- মোঃ শুকুর আলী, সাং-কৈঝুরি, থানা-সাটুরিয়া, জেলা- মানিকগঞ্জকে গ্রেফতার করে। পরবর্তীতে তাদের দেয়া তথ্য মতে অপর ধর্ষণকারী (৩) মোঃ ঝন্টু মিয়া (৩২), পিতা-মৃত জব্বার মিয়া, সাং-পূর্ব ধনিয়া, থানা-আশুলিয়া, জেলা- ঢাকা কে নয়ারহাট এলাকায় আরেকটি বাড়ী হতে ঘটনার ভিডিও চিত্র ধারণকৃত মোবাইল সেট সহ মোট ০৩টি মোবাইল সহ গ্রেফতার করে।

৪।    ঘটনার বিবরণে জানা যায় যে, ভিকটিম গত ২৫ মে ২০১৭ ইং তারিখ সকাল ০৫ ঘটিকায় তার ভাড়া বাসা হতে নিজ বাড়ী কালিয়াকৈর, গাজীপুর এলাকায় যাওয়ার উদ্দেশ্যে বের হওয়ার সময় উপরোক্ত আসামীরা ভিকটিমের পথরোধ করে ভিকটিমকে জোরপূর্বক একটি অটোরিক্সাতে করে ধামরাই থানাধীন ধুলিভিটা কাঁচা বাজারের নিকট ¯েœাটেক্স গার্মেন্টেসের পূর্ব পাশে একটি টিনসেডের কক্ষে নিয়ে যায় এবং উপর্যুপরি গণধর্ষণ করে এবং ধর্ষণের ভিডিও চিত্র ধারণ করে। ভিকটিমকে তারা হুমকি দেয় যদি তিনি ধর্ষণের ঘটনা কারো কাছে প্রকাশ করেন তাহলে তা ইন্টারনেটের মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে তার সামাজিক সম্মান ক্ষুন্ন করা হবে। তাকে আরো হুমকি দেয়া হয় তাৎক্ষণিক ভাবে ২০,০০০/- (বিশ হাজার) টাকা না আনলে ধারনকৃত ভিডিও ছড়িয়ে দেয়া হবে। উক্ত ভিকটিম তার কাছে কোন টাকা না থাকার কথা জানিয়ে টাকা জোগাড়ের জন্য সময় চান। এর পরিপ্রেক্ষিতে আসামীরা তাকে টাকা আনার জন্য সময় দিলে তিনি কৌশলে সেখান থেকে বেড়িয়ে এসে ভরসার বাতিঘর বলে বিবেচিত র‌্যাব-৪, সিপিসি-২, নবীনগর ক্যাম্পে উপস্থিত হয়ে অভিযোগ দায়ের করেন। ধৃত আসামীদেরকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আরও জানায় যে আসামী রিপন নয়ারহাট এলাকায় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী হিসাবে পরিচিত।

৫।    উপরোক্ত বিষয়ে আইনানুগ ব্যাবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

র‌্যাব কর্তৃক প্রদত্ত পরামর্শ

***জমি জমা বা টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোন অভিযোগ র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***ব্যক্তিগত বা পারিবারিক কোন সমস্যা র‌্যাব কর্তৃক গ্রহণ করা হয় না ।
***কোন অভিযোগ করার পূর্বে আপনার এলাকার জন্য দায়িত্বপূর্ন র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্প সম্পর্কে জানুন ও যথাযথ র‌্যাব ব্যাটালিয়ন/ক্যাম্পে অভিযোগ করুন ।
***আপনার এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্কে র‌্যাব কে তথ্য প্রদান করে র‌্যাবকে সহযোগীতা করুন । আপনার পরিচয় সম্প‍ুর্ন্ন গোপন রাখা হবে ।
***বেশী করে গাছ লাগান অক্সিজেনের অভাব তাড়ান
***ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের আগুন নিয়ে খেলতে দিবেন না ।
***যাত্রা পথে অপরিচিত লোকের দেওয়া বিছু খাবেন না । ভ্রমণকালে সহযোগী বা অন্য কাহারো নিকট হইতে পান, বিড়ি, সিগারেট, চা বা অন্য কোন পানীয় খাওয়া/গ্রহন করা হইতে বিরত ‍থাকা আবশ্যক ।

সাম্প্রতিক ভিডিও